মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

ছাত্রনেতা আল-আমীনের হস্তক্ষেপে চরফ্যাসনে অটোরিক্সা চোর চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার; চোরাই ৬টি অটোরিক্সা ও ১৮টি ব্যাটারি উদ্ধার

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২২

এম এ আশরাফ, বিশেষ প্রতিনিধিঃ ভোলা জেলার পুলিশ সুপার জনাব মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম এর দিকনির্দেশনায় চরফ্যাসন থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মোরাদ হোসেন এর তত্ত্বাবধানে এসআই প্রবোধ দাশ এর নেতৃত্বে ও ছাত্রলীগ নেতা আল-আমিনের হস্তক্ষেপে ভোলার বাংলাবাজার ও কালীবাড়ি রোড এলাকায় পৃথকভাবে অভিযান পরিচালনা করে অটোরিক্সা চোর চক্রের ৩ সদস্যকে চোরাই ৬ টি অটোরিক্সা ও ১৮ টি ব্যাটারি সহ গ্রেফতার করে চরফ্যাসন থানার একটি চৌকস টিম।

জানা যায়, আল-আমিন চরফ্যাশন জিন্নাগড় ইউনিয়নের ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। অটোরিকশা চোর চক্র ধরার মূল নায়কের চরিত্রে এই ছাত্রনেতা। তার বুদ্ধিমত্তা ও সাহসীকতায় এই চক্রকে ধরা হয়। ইতিমধ্যে এই ছাত্রনেতা প্রশংসায় ভাসছেন।

প্রায় দুই সপ্তাহ পূর্বে ভুক্তভোগী জনৈক জাহিদুল ইসলাম নোমান এর মালিকানাধীন একটি অটোরিক্সা চুরি হওয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে চরফ্যাসন থানায় রুজুকৃত মামলার রহস্য উদঘাটনের লক্ষ্যে চরফ্যাসন থানার এসআই প্রবোধ দাশ এর নেতৃত্বে একটি চৌকস টিম তদন্ত কার্যক্রম শুরু করে। তথ্য প্রযুক্তি মাধ্যমে গত ৩০ নভেম্বর ২০২২ তারিখ এসআই প্রবোধ দাশ সংগীয় কনস্টেবল/৩৭৩ হাসানুজ্জামান বাংলাবাজার পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের সহায়তায় অটোরিক্সা চোর চক্রের প্রধান আসামি হযরত আলী মিজান (৪৯)কে বাংলাবাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়। তার দেয়া তথ্য মতে ভোলার বাংলাবাজার ও কালীবাড়ি রোড এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে চোর চক্রের আরো দুই সদস্য হাবিব (২৪) ও ইউসুফ (৫৫)কে চোরাই ০৬ টি অটোরিক্সা ও ১৮ টি ব্যাটারি সহ গ্রেফতার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামীরা জানায় যে, চোর চক্রটি বিগত কয়েক মাস যাবৎ ড্রাইভরদের সাথে বন্ধুত্বসূলভ আচরণ করে কোল্ডড্রিংসের মধ্যে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে কৌশলে পানকরিয়ে ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা চুরি করে আসছে। তারা চোরাই অটোরিক্সার বিভিন্ন যন্ত্রাংশ খুলে আলাদা আলাদা ভাবে বিক্রয় করত এবং অটোরিক্সার ব্যাটারি আসামি ইউসুফ (৫৫) এর ব্যাটারির দোকানে বিক্রয় করত।

গ্রেফতারকৃত আসামিদের দেওয়া তথ্য পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে যাচাই করা হবে। চোর চক্রের সাথে জড়িত অন্যান্য আসামীদের সনাক্তপূর্বক গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে এর আগেও ভোলা জেলার বিভিন্ন থানায় চুরির একাধিক মামলা রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ