শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:৫৮ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

‘সাম্প্রদায়িক উস্কানির’ পর বানান ভুলে ফাঁসলেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের সেই মডারেটররা

মিরাজুল কবীর টিটো যশোর প্রতিনিধি
প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২২

এইচএসসির বাংলা ১ম পত্রের প্রশ্ন

চলতি উচ্চমাধ্যমিকের (এইচএসসি) বাংলা ১ম পত্রের প্রশ্নে ‘সাম্প্রদায়িক উস্কানির’ ঘটনার রেশ না কাটতেই বানানে অসংগতির কারণে ফাঁসলেন সেই মডারেটরা। চলমান এইচএসসির চট্টগ্রাম বোর্ডের প্রশ্নে বানান ভুলের কারণে তাদেরকে শোকজ করা হয়েছে। তাদের পাশাপাশি প্রশ্ন প্রণয়নকারীকেও কারণ দর্শাতে বলেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ঢাকা বোর্ডের বাংলা ১ম পত্রের প্রশ্নে ‘সাম্প্রদায়িক উস্কানির’ অভিযোগ ওঠে ওই ৪ মর্ডারেটরের বিরুদ্ধে। এদিকে, নতুন করে বাংলা ১ম পত্রের প্রশ্নে বানান ভুলের অভিযোগ উঠলো তাদের বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম বোর্ডের বাংলা প্রশ্নে ভুল বানানের কারণে প্রশ্ন প্রণয়নকারী কুষ্টিয়ার দৌতপুর উপজেলার মহিষাকুন্ডু কলেজের সহকারী অধ্যাপক রুবিনা পারভীনসহ পাঁচজনকে শোকজ করা হয়েছে। আন্তঃ শিক্ষা বোর্ড থেকে বুধবার যশোর বোর্ডের চেয়ারম্যানের কাছে এ বিষয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। সেই চিঠি পেয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আহসান হাবীব। তিনি জানান, দ্রুই তাদেরকে শোকজ করা হবে। বানান ভুলে অভিযুক্ত প্রশ্ন প্রণয়নকারী দৌতপুর মহিষাকুন্ডু কলেজের সহকারী অধ্যাপক রুবিনা পারভীন, মডারেটর কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা আদর্শ কলেজের সহকারী অধ্যাপক রেজাউল করিম, নড়াইলের মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজের সহকারী অধ্যাপক শ্যামল কুমার ঘোষ, নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের সহযোগী অধ্যাপক সৈয়দ তাজউদ্দিন শাওন ও সাতক্ষীরা সরকারি মহিলা কলেজের সহযোগী অধ্যাপক শফিকুর রহমান। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের বাংলা প্রথমপত্রের ভুলগুলো হচ্ছে ১. প্রশ্নে ‘যে কোনো’ লেখা আছে। প্রকৃতপক্ষে এটি ‘যে-কোনো অথবা যেকোনো’ এভাবে লেখা উচিত। ২. দাবী> দাবি, ৩. আকাশ ছোঁয়া> আকাশ-ছোঁয়া, ৪. সঙ্গতিপূর্ণ> সংগতিপূর্ণ, [(সংগতি+পূর্ণ) বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১২৬৫], ৫. নেয়না> নেয় না [না-বাচক না এবং নি-এর প্রথমটি (না) স্বতন্ত্র পদ হিসেবে এবং দ্বিতীয়টি (নি) সমাসবদ্ধ হিসেবে ব্যবহৃত হবে। বাএপ্রাবানি, অনুচ্ছেদ: ৩.৩]। দ্বিতীয় পৃষ্ঠার প্রশ্নের ভুলগুলোর মধ্যে রয়েছে, ৬. মুক্তি বাহিনীতে> মুক্তিবাহিনীতে (বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১১১৮)। একবার লেখা হয়েছে ‘মুক্তি বাহিনী’ আরেকবার লেখা হয়েছে ‘মুক্তিবাহিনী’। ৭. তাকে> তাঁকে [একই ব্যক্তির জন্য পরের সর্বনামসমূহে চন্দ্রবিন্দু ব্যবহার করা হয়েছে।] ৮. দেননা> দেন না [না সংশ্লিষ্ট পদ হতে ফাঁক রেখে বসে; বাংলা একাডেমি প্রমিত বাংলা বানানের নিয়ম, অনুচ্ছেদ: ৩.৩, প্রাগুক্ত: ৫] ৯. লাগবেনা> লাগবে না [প্রাগুক্ত: ৫], ১০. গার্মেন্টস কর্মী> গার্মেন্টসকর্মী [বাএপ্রবাবানি, অনুচ্ছেদ: ৩.১], ১১. নানা-নানীর> নানা-নানির [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৭২৬], ১২. গরীব> গরিব [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৩৯০], ১৩. নানা-নানী> নানা-নানি [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৭২৬], ১৪. সাধ্যমত> সাধ্যমতো [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১৩১৮], ১৫. হলনা> হলো না [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১৩৮৫, বাএপ্রবাবানি, অনুচ্ছেদ: ৩.৩], ১৬. নানা-নানীর> নানা-নানির [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৭২৬], ১৭. নানা-নানী> নানা-নানি [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৭২৬], ১৮. নানা-নানীর> নানা-নানির [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৭২৬], ১৯. ছেলে- মেয়েরা > ছেলে-মেয়েরা [হাইফেনের পর ফাঁক হয় না।], ২০. নেয়ার> নেওয়ার [নেয়ার অর্থ খাটের পৃষ্ঠদেশে বুননের জন্য (কাঠের পাটাতনের পরিবর্তে) ব্যবহৃত মোটা সুতোয় বোনা চওড়া ফিতে (বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৭৬০)। ‘নেয়া’ শব্দটি ‘লওয়া’ অর্থে আঞ্চলিক ভাষায় ব্যবহৃত হতে পারে।]। তৃতীয় পৃষ্ঠার ভুলগুলো হচ্ছে, ২১. হৈচৈ> হইচই [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১৩৭৯], ২২. গরীব ঘরের> গরিব ঘরের [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৩৯০], ২৩. বয়সী> বয়সি [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৯১৯], ২৪. বয়সী> বয়সি [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৯১৯], ২৫. চায়না> চায় না [চায়না একটি দেশ ও ভাষার নাম; প্রাগুক্ত: ৫], ২৬. ভেংচি> ভ্যাংচি [ভ্যাংচানো থেকে ভেংচি; বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১০৬১], ২৭. শাড়ীর> শাড়ির [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১২২৯], ২৮. সঙ্গতিপূর্ণ> সংগতিপূর্ণ (সংগতি+পূর্ণ; বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১২৬৫]। চার নম্বর পৃষ্ঠার ভুলগুলো হচ্ছে, ২৯. বড়> বড়ো [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৯১২], ৩০. উচ্চ শিক্ষা> উচ্চশিক্ষা [বাএআবাঅ এবং বাএপ্রমবাবানি, অনুচ্ছেদ: ৩.১], ৩১. পাঠায়> পাঠান [একই ব্যক্তির জন্য এর আগে সম্মানসূচক ক্রিয়া ব্যবহার করা হয়েছে।], ৩২. অসহায়, দুস্থ রোগীদের> অসহায় ও দুস্থ রোগীদের [বাক্য বিন্যাস অনুযায়ী কমা-চিহ্ন সমীচীন হয়নি।], ৩৩. তাবিজ কবজ> তাবিজ-কবজ/তাবিজকবজ [বাএপ্রাবানি, অনুচ্ছেদ ৩.১], ৩৪. ঝাড় ফুঁক> ঝাড়ফুঁক [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৫৪০], ৩৫. অন্ধ বিশ্বাস> অন্ধবিশ্বাস [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৫৬], ৩৬. পারেনা> পারে না [প্রাগুক্ত: ৫], ৩৭. কোন> কোনো [বাংলা কোন (উচ্চারণ: কোন্) অর্থ (সর্বনামে) কী, কে, কোনটি (কোন বছর, কোন লোক, কোন জিনিস); (ক্রিয়াবিশেষণে) কী প্রকারে, কীভাবে, কীসে (তুমিই বা কোন লাট বাহাদুর)। এটি কোনো বা কোনও শব্দের সমার্থক নয়। যেমন: “তুমি কোন জামাটি চাও” বাক্যে একই অর্থ প্রকাশে ‘কোনও’ বা ‘কোনো’ ব্যবহার বিধেয় নয়। ৩৮. কোন দিকে> কোনোদিকে, ৩৯. শিকর> শিকড় [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১২৩৩], ৪০. বড়>বড়ো [বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ৯১২] এবং ৪১. সঙ্গতিপূর্ণ> সংগতিপূর্ণ (সংগতি+পূর্ণ; বাএআবাঅ, পৃষ্ঠা: ১২৬৫)।

এর আগে ঢাকা বোর্ডের বাংলা ১ম পত্রে সাম্প্রদায়িক উস্কানিমুল প্রশ্নের কারণে ওই চারজন মডারেটরের অপরাধ তদন্তের জন্য যশোর শিক্ষা বোর্ড তদন্ত কমিটি গঠন করে। গত ১০ নভেম্বর তারা বোর্ডে তদন্ত কমিটির মুখোমুখি হন। তদন্ত কমিটি তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। বুধবার তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের কাছে জমা হয়েছে। তাতে তাদের শাস্তির সুপারিশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে তদন্ত কমিটি। আর এই প্রতিবেদন জমা দেয়ার দিন প্রশ্নে ভুলের শাস্তির ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আন্তঃ শিক্ষা বোর্ড থেকে চিঠি আসে যশোর বোর্ডে।

বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মাধব চন্দ্র রুদ্র জানান, আন্তঃশিক্ষা বোর্ড থেকে চিঠি দিয়ে বানান ভুলের ঘটনায় প্রশ্ন প্রণয়নকারী ও চার মডারেটরকে শোকজ করতে বলা হয়েছে।

যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আহসান হাবীব জানান, প্রশ্নে ‘সাম্প্রদায়িক উস্কানির’ ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন পেয়েছেন। প্যাকেটে সিলগালা করে প্রতিবেদন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। সেখান থেকে যে নির্দেশ আসবে, সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়াও প্রশ্নে বানান ভুল নিয়ে সংশ্লিষ্টদের শোকজের জন্য আন্তঃ শিক্ষা বোর্ড থেকে চিঠি এসেছে। দ্রুতই তাদেরকে শোকজ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ