রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৭:০৫ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

টেকনাফে সরকারি পরিত্যক্ত জমি অবৈধভাবে দখল অব্যাহত: ভূমিদস্যু কাশেমের খুঁটির জোর কোথায়?

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২২

বিশেষ প্রতিনিধি,কক্সবাজার ।। 

সরকার যখন অবৈধ দখলদার উচ্ছেদে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাচ্ছে তখন কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়ার জাহাজ পুরায় চলছে দখলের মহোৎসব। চিহ্নিত ভূমিদস্যু আবুল কাশেম ও তার ছেলে ইরফান ও হিরো সরকারি পরিত্যক্ত জমি অবৈধভাবে দখল উৎসবে মেতে উঠেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জাহাজ পুরা মেরিন ড্রাইভ সংলগ্ন সরকারি জায়গা দখল করে অবৈধভাবে দোকান নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে মৃত মিয়া হোসেনের ছেলে আবুল কাশেম তার ছেলে ইরফান ও হিরো নামের ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে।

আবুল কাশেমের ছেলে ইরফান ও হিরো প্রভাব খাটিয়ে অবৈধভাবে সরকারি পরিত্যক্ত জমি দখল করছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

সুত্রে জানা যায়, টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শিলখালী মৌজার বিএস ১ নং খাস খতিয়ানের ৬৬০৫,৬৭০০ দাগের ৪০ শতক সরকারি পরিত্যক্ত জমি অবৈধভাবে দখল করছে ভূমিদস্যু আবুল কাশেম ও তার দুই ছেলে ইরফান ও হিরো। জাহাজ পুরা মেরিন ড্রাইভ সংলগ্ন পরিত্যক্ত সরকারি খাস জমি অবৈধভাবে দখল করে দোকান নির্মাণ করছে তারা। কেউ মুখ খোলার সাহস পাচ্ছেনা। মুখ খুললে মিথ্যা মামলা ও শারীরিক নির্যাতন করবে বলে হুমকি দেয়।তাই ভয়ে কেউ কিছু বলছেনা।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, জামায়াত নেতার ছেলে ইরফান বাহারছড়া যুবদলের ক্যাডার। ২০১৩ সালে জামায়াত বিএনপির হরতালের নামের জ্বালাও এবং ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম করলে পুলিশ জামায়াতের সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। যার নং জিআর ৬৩২/১৩। মামলায় ৫ নং আসামি জামায়াতের শীর্ষ নেতা আবুল কাশের ছেলে মোঃ ইরফান। বর্তমানে সরকারি জমি দখল থেকে শুরু সকল অপকর্মে জড়িত ।

এবিষয়ে টেকনাফের এসিল্যান্ড (ভারপ্রাপ্ত ইউএনও) ইরফানুল হক চৌধুরী জানান,সরকারি জমি বা খাস জমিতে কোন প্রকার স্থাপনা নির্মাণ বা দখল করতে দেয়া হবে না।

উল্লেখ্য যে, বাহারছড়া ইউনিয়নের জাহাজপুরার পোস্ট মাস্টার আবুল কাশেম। জাহাজপুরা পোস্ট অফিসে ই-সেন্টারে ডিজিটাল সেবা নিশ্চিতকরণের লক্ষে ডাক বিভাগ কর্তৃক টি ল্যাপটপ, লেজার প্রিন্টার, রঙ্গিন প্রিন্টার, স্ক্যানার, মডেম, কিবোর্ড, মাউসসহ কয়েক লাখ টাকার সরঞ্জাম প্রদান করা হয়। কিন্তু পোস্ট অফিসে তা ব্যবহার না করে পোস্ট মাষ্টার আবুল কাশেম তার ছেলে ইরফারকে দিয়ে জাহাজপুরা মেরিন ড্রাইভ সংলগ্ন একটি ব্যবসা প্রতিষ্টান করে। এবং সে ব্যবসা প্রতিষ্টানে আগুন লাগে গত ২৯ আগস্ট। পোস্ট অফিসের সকল সরঞ্জাম পুড়ে ছাঁই হয়ে যায় বলে স্হানীয়রা জানিয়েছেন। টেকনাফ উপজেলার উপকূলীয় বাহারছড়া জাহাজ পুরা পোষ্ট অফিসে পোস্ট ই-সেন্টারের সেবার মধ্যে রয়েছে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ, কম্পিউটার প্রিন্টিং, কম্পিউটার কম্পোজ, ছবি প্রিন্ট, স্ক্যানিং, ই-লার্নিং, ই-মেইল, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, ইন্টারনেটে পরীক্ষা ফলাফল প্রিন্ট, চাকুরির আবেদন, কৃষি তথ্য প্রদান, দেশ-বিদেশে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলাসহ বিভিন্ন ধরণের ডিজিটাল সেবা প্রদান।এসব নামে থাকলেও কার্যক্রম কিছু নেই।

পোস্ট মাষ্টার আবুল কাশেম নামে থাকলেও কোন দায়িত্ব পালন করেনা বলে গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে পোস্ট অফিসটি খোলেনা। পোস্ট অফিসের মাস্টার থাকলেও কোনদিন তাকে দেখা যায়নি।পোস্টমাস্টার আবুল কাশেমকে কোনদিন অফিসে দেখেনি স্থানীয়রা। সারা দেশে ডাক বিভাগকে ডিজিটাল করা হলেও বা করার সুযোগ থাকলেও বাহারছড়ার মানুষ এসব সুবিধা থেকে বঞ্চিত।

পোস্ট মাস্টার আবুল কাশেম তার ছেলে ইরফানকে দিয়ে মেরিন ড্রাইভ সংলগ্ন পোস্ট অফিসের পাশ্বে একটি ব্যবসা প্রতিষ্টান করে।সে ব্যবসা প্রতিষ্টানে পোস্ট অফিসের সরঞ্জাম ব্যবহার করছে বলে জানা গেছে।সরেজমিনে দেখা গেছে, বাহির থেকে তালা ঝুলছি টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়ার জাহাজপুরা পোস্ট অফিসটি। একটি কক্ষে কিছু কাগজপত্র দেখা যাচ্ছে সেগুলোও আগুনে পুড়ে গেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ