রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৫২ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

ধর্ম ও জীবন : ইসলামের দাওয়াত ও তাবলীগ বিষয়ে জাকির হোসেন রিংকুর কলাম

নিজেস্ব প্রতিবেদক:
প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২

ধর্ম ও জীবন : ইসলামের দাওয়াত ও তাবলীগ বিষয়ে জাকির হোসেন রিংকুর কলাম
জাকির হোসেন রিংকু তরুণ লেখক, কবি। ইতিমধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তার লিখা এবং কবিতা অনেকেরই মন কেড়েছে। তার লেখার মধ্যে সত্য এবং সুন্দরের সমন্বয় খুঁজে পাওয়া যায়। জাকির হোসেন রিংকুর জন্মস্থান গাজীপুরের কাপাসিয়ার টোকে। টোকের হোটেল নিরিবিলির স্বত্ত্বাধিকারী তোতা মিয়ার বড় ছেলে রিংকু-যার কোমল হৃদয় ঝুঁকেছে ধর্মের দিকে।
দাওয়াত ও তাবলীগ পূর্ণাঙ্গ দ্বীন নয়,
তবে দ্বীনের দাওয়াতের বড় একটি মাধ্যম।
দাওয়াত মানে আহ্বান,তাবলীগ অর্থ পৌঁছানো। ইসলামের উপমাহীন আদর্শের প্রতি মানুষকে ডাকা হলো দাওয়াত।
হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)কে অনুসরণ করে ভারতীয় উপমহাদেশের ইসলামের সুপন্ডিত হযরত মাওলানা ইলিয়াস (রহ.) সাধারণ মুসলিমদের মধ্যে ইসলামি আদর্শ,নীতি ও মানব কল্যাণের প্রত্যাশায় ঘাটতি জনিত কারণে তিনি ১৯২০ সালে তাবলিগ জামাত নামক তরতিব চালু করেন।
ঐ ব্যক্তির কথার চেয়ে কার কথা উত্তম হতে পারে, যে আল্লাহর পথে দাওয়াত দেয়,নিজে সৎকর্ম করে,এবং বলে যে নিশ্চয়ই আমি মুসলমানদের অন্তর্ভুক্ত। সৎকর্ম ও অসৎকর্ম সমান নয়। প্রতুত্তোর নম্রভাবে দাও, দেখবে তোমার শত্রুও অন্তরঙ্গ বন্ধুরূপে পরিণত হয়েছে’। (হা-মীম সিজদা ৩৩-৩৪)।
 আল্লাহ তা’আলা বলেন: ‘তোমরা ডাকো তোমাদের রবের পথে, হেকমত এবং সুন্দর উপদেশের মাধ্যমে।’ (সুরা-১৬ নাহল, আয়াত: ১২৫)
দাওয়াত ও তাবলীগ বিশ্বব্যাপী মেহনত করে যাচ্ছে, হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এবং দয়াময় প্রভু মহান মালিক সৃষ্টিকর্তার আদেশ ভুলে যাওয়া মানুষগুলোকে আল্লাহ এবং নবীর সাথে সম্পর্ক তৈরি করিয়ে দিচ্ছে। দাওয়াত ও তাবলীগ এক অসাধারণ মেহনত,মানব কল্যাণের একটি বড় কর্ম।
মহান স্রষ্টা প্রেমময় মালিক আল্লাহ;
পবিত্র আল কুরআনে ৮২ বার নামাজের কথা বলেছেন, সুতরাং নামাজ ছেড়ে দিলে  ক্ষণস্থায়ী দুনিয়ায় ও চিরস্থায়ী আখেরাতে ভয়ানক শাস্তির মুখাপেক্ষী হতে হবে। নামাজ এবং দ্বীনের দাওয়াত,মহান রাব্বুল আলামীন আল্লাহর পক্ষ থেকে অলৌকিক নৈকট্য অর্জন করার সরল সঠিক পথ।
আমার দ্বীনের সঠিক জ্ঞান ছিল না,
দাওয়াত ও তাবলীগের মেহনতে,
আল্লাহর হুকুম মেনে ও নবী তরিকায় জীবন সাজানো এবং পথ চলার অনুভূতি জেগেছে,তাই কালেমার দাওয়াত, আল-কুরআন থেকে সঠিকভাবে শিক্ষা নিয়ে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা,ফরজ এবং ফজিলতপূর্ণ রোজা, হজ্ব ও যাকাত,যথাযথ ভাবে পালন করার সিদ্ধান্তে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছি। মন চায় জিন্দেগি নহে,রব চায় জিন্দেগি গড়ার লক্ষ্যে,নিজের নফসের অভিপ্রায়
থেকে পরিত্রাণ পেতে চাই, তাই নিজের
নফসের বিরুদ্ধে চলার লক্ষ্যে,পরিবর্তন আনার জন্য যে ওয়াক্ত নামাজ কাযা হবে,সে
 ওয়াক্তের খাবার পরিত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
হে অন্তর্যামী মালিক মহীয়ান,
 আরশের অধিপতি হে সুমহান,
সবাইকে সঠিক দ্বীনের উপর ওঠার তৌফিক দান করুন । আমিন। ছুম্ম আমীন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ