বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ১২:০৫ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

ছাত্রলীগ কর্তৃক ইবি শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ৪ আগস্ট, ২০২২

ছাত্রলীগ কর্তৃক ইবি শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ।

মাহমুদ/ইবি প্রতিনিধি :

নতুন কমিটি ঘোষণার তিন দিন পর শোকের মাসে বৈধ ছিটকে কেন্দ্র করে আরাফাত নামে একজনকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে শাখা ছাত্রলীগকর্মীর বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ জিয়াউর রহমান হলের ২১১ নং কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী সৈয়দ ফাহিম আবরার (আরাফাত) রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, তরিকুল ইসলাম তরুণের নেতৃত্বে এ ঘটনা ঘটে। সে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ জয়ের কর্মী।

ভুক্তভোগী সূ্ত্রে, তরিকুল ইসলাম তরুণ প্রায় ২০-৩০ জনকে সাথে নিয়ে জিয়াউর রহমান হলের ২১১ নং কক্ষে ঢোকে। এসময় তরুণ রুমের বৈধ শিক্ষার্থী আরাফাতকে রুম থেকে বের হয়ে যেতে বললে এক পর্যায়ে তাদের মাঝে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এসময় রড দিয়ে আরাফাতকে আঘাত করে তরুণ। আঘাত ঠেকাতে গেলে হাতের তালুতে আঘাত পায় আরাফাত। এসময় তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় ও কিল ঘুষি মারে সে ও তার সহযোগীরা। একপর্যায়ে রুম থেকে পালিয়ে যায় আরাফাত। এসময় তরুণ ও তার সহযোগীরা রুম তালাবদ্ধ করে রেখে যায়।

অভিযুক্ত তরিকুল ইসলাম তরুণ বলেন, “আরাফাত ছাত্রলীগের পদপ্রাপ্ত সদস্যদের নিয়ে বাজে কথা বলে বেড়ায়। আমরা ৪-৫ জন তাকে এ কথা জিজ্ঞেস করলে সে এক পর্যায়ে রড দিয়ে আমাদের মারতে উদ্যত হয়। এসময় আমরা প্রতিহত করি।”

এ বিষয়ে নাসিম আহমেদ জয় বলেন, “বিষয়টি সম্পর্কে আমি বিস্তারিত শুনেছি এটি একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। দ্রুতই এটা সমাধান করে ভুক্তভোগীদের নিজস্ব কক্ষে উঠার ব্যবস্থা করছি।”

প্রক্টর অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, “ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী আমাদের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন। আগামীকাল হল প্রভোস্ট ও প্রক্টরিয়াল বডির সাথে বসে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। “


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ