বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ১২:৩৮ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

‘স্বপ্ন ছুই ইয়ুথ ফাউন্ডেশন’ আলো ছড়াচ্ছেন সর্বত্র

মো. গোলাম আযম সরকার, রংপুর প্রতিনিধি
প্রকাশকালঃ রবিবার, ৩১ জুলাই, ২০২২

‘স্বপ্ন ছুই ইয়ুথ ফাউন্ডেশন’ আলো ছড়াচ্ছেন সর্বত্র

প্রতিনিধি মো. গোলাম আযমের কাছে সংগঠনের কার্যক্রম নিয়ে কথা বলছেন সভাপতি মেহেদী হাসান।

মো. গোলাম আযম সরকার ,রংপুরঃ
রংপুরের পীরগাছা উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরে ছাওলা ইউনিয়নের কান্দিনার চর গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের উত্তর পশে^ই গোল হয়ে বই নিয়ে কিচির-মিচির করে পড়াশুনা করছেন ৫০ জন শিশু। মুলত ওই এলাকার মাত্র এগার জন যুবকের প্রচেষ্ঠার কারনে করোনাকালীন সময়ে শুরু হওয়া স্কুল-ছুটিতে রোজ বিকেলের পড়াশুনোর আড্ডা থেকে ভ্রাম্যমান বিদ্যালয়। কেেরানার সময় শেষ হলেও চালু রেখেছেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি সহ বিভিন্ন ধরনের সামাজিক কার্যক্রম। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি চলছে একটি রুটিন মোতাবেক। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির আছে একজন শিক্ষক , তিনি আবার প্রতি মাসে বেতন পেয়ে থাকেন, সেই বেতন আবার দেন এই এগার জন যুবকেই। যুবকরা তাদের এই কার্যক্রমটি একটি ব্যানারে করছেন , তারা একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন তৈরি করেছেন যার নাম দিয়েছেন ‘স্বপ্ন ছুই ইয়ুথ ফাউন্ডেশন’ । তাদের স্বপ্ন শুধু ‘বিনামূল্যে’র এই স্কুলে সীমাবদ্ধ নয়, জরুরী রক্ত ও চিকিৎসা সেবাদান, স্থানীয় যুবকদের কর্মমূখী প্রশিক্ষণ প্রদান, নার্সারি তৈরি, দুস্থ মানুষকে সহায়তাদানসহ নানা কাজ করে যাচ্ছেন তারা। তাদের সুনাম আজ শুধুমাত্র পীরগাছায় নয়, পীরগাছার বাহিরে রংপুরে চলে গেছে । এই কারনে তাদের সদস্য সংখ্যা এগারজন থেকে শুরু করে তিনশত জনে চলে গেছে। স্বেচ্ছাসেবামূলক এই উদ্যোগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মেহেদী হাসান রাব্বি, রাব্বি পড়াশুনো করছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে, সংগঠনটি যখন শুরু করেন প্রথমেই তাকে সহযোগিতা করেন তারা হলেন বরং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শরিফুল ইসলাম ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাজেদুল ইসলাম মাজেদ ও উচ্চ মাধ্যমিকের গন্ডি পেরুনো মাইদুল ইসলাম শুরু থেকেই এর মূলভাগে যুক্ত আছেন। এছাড়াও স্থানীয় কলেজপড়ুয়া স্বেচ্ছাসেবীরা তো আছেনই। এদের মধ্যে মোঃ আলমগীর হোসেন,মাইদুল ইসলাম (দুই). সাইদুর রহমান, কামাল হোসেন, কামরুল হাসান, বেলাল হোসেন সহ প্রায় তিন শতাধিক যুবক এখানে কাজ করেেছন।

চলমান শিক্ষা কায়ক্রম

সভাপতি মেহেদী হাসান রাব্বি ও সাধারন সম্পাদক শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘উত্তরবঙ্গের প্রত্যন্ত এই অঞ্চলের অধিকাংশ মানুষ দরিদ্র ও নিরক্ষর। তাছাড়া যোগাযোগ ব্যবস্থাও ততটা ভালো না হওয়ায় তারা অনেক নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত। অনেকেই আছেন, যারা সন্তানদের স্কুলে পাঠাতেও তেমন আগ্রহী নন। সেই জায়গা থেকে আমরা এই এলাকার মানুষের শিক্ষা ও চিকিৎসার বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করছি’ ।
মেহেদী হাসান বলেন, করোনার কারণে দুই বছর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। অনলাইনে ক্লাস চললেও চরাঞ্চলে শিক্ষার্থীদের তো সেই সুবিধা নেই। ফলে তারা যাতে ঝরে না পড়ে, সেই জন্য বিনামূল্যে শিক্ষা কার্যক্রম চালানো শুরু হয়। স্থানীয় স্কুলের শিক্ষার্থীরা যায়, কিন্তু আমাদের কার্যক্রমটা মুলত স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির পরই শুরু হয়। তাছাড়া এসব শিশুর মা-বাবারা আসলে তাদের পড়াশুনোয় সেভাবে সাহায্য করতে পারেন না। আমরা সেই জায়গাটিতেও কাজ করছি। শিক্ষার্থীদের পাশে দাড়ানোর পাশাপাশি শীতার্তদের শীতবস্ত্র, স্বল্পমূল্যে চিকিৎসা সেবা, রক্তদান কর্মসূচী, দুস্থ মানুষদের বাসায় খাদ্যদ্রব্য পর্যন্ত পৌঁছে দিচ্ছে সংগঠনটির স্বেচ্ছাসেবীরা। ২০২০ সালে করোনা প্রাদুভার্বের সময় ‘স্বপ্ন ছুই’য়ের প্রতিষ্ঠার পর এসব কাজ করে যাচ্ছে সংগঠনটি। সম্প্রতি মানুষ যেন ঘরে বসে স্বাস্থ্য সেবা নিতে পারে সেই জন্য টেলিমেডিসিন সেবাও চালু করেছেন তারা।

বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি

মেহেদী হাসান জানান, সামনের বছর এক হাজারের অধিক ফলজ ও ঔষধি গাছ লাগানোর লক্ষ্য নিয়ে ‘স্বপ্ন ছুঁই নার্সারি’ নামের একটি প্রজেক্ট হাতে নিয়েছি আমরা। ইতোমধ্যেই নার্সারির কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আমাদের পরিকল্পনা আছে, কীভাবে গ্রামের যুবক-যুবতীদের প্রশিক্ষণ দিয়ে আত্মকর্মসংস্থান তৈরি করা যায়। ইতোমধ্যে তাদের নিয়ে কর্মশালারও আয়োজন করেছেন সংগঠনটি।
স্বপ্ন ছুঁই’য়ে এগারো জনের কার্যকরী কমিটি ও প্রায় তিন শতাধিক স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছে।
প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মেহেদী হাসান রাব্বি এসময় বলেন. তিনি মুলত এই কাজে অনুপ্রেরনা পেয়েছেন জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমানের বক্তব্যও কার


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ