বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ১০:৫৭ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

পদ্মা সেতু উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রীর দেহরক্ষী হোক ‘বঙ্গবন্ধুর বডিগার্ড’

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন, ২০২২

পদ্মা সেতু উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রীর দেহরক্ষী হোক ‘বঙ্গবন্ধুর বডিগার্ড’

পদ্মা সেতু উদ্বোধনকে ঘিরে কঠোর অবস্থানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় আবাসিক হোটেল গুলোতে তল্লাশির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নাশকতাকারীদের সকল ধরণের নাশকতা ঠেকাতে তিন বাহিনীর প্রধানসহ সকলকে সতর্ক থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তবে মুন্সীগঞ্জ জেলাবাসীর অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার প্রটোকলের দায়িত্ব দেওয়া হোক যিনি তার পিতার জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের প্রধান দেহরক্ষী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

এ বিষয়ে মুন্সীগঞ্জের রিকাবী বাজারবাসী সৌরভ আহমেদকে প্রশ্ন করলে জানান – আলহাজ্ব মোহাম্মদ মহিউদ্দিন আমাদের গর্ব। বঙ্গবন্ধু জীবিত থাকা অবস্থায় নিষ্ঠার সাথে দেহরক্ষী হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

মুন্সীগঞ্জ নিবাসী মোঃ শফি প্রত্যাশা করেন আমরা চাই বঙ্গবন্ধুর আস্থাভাজন দেহরক্ষী মোঃ মহিউদ্দিন সাহেব পদ্মা সেতু উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকুক।

বঙ্গবন্ধুর মহিউদ্দিন খ্যাত আলহাজ্ব মোঃ মহিউদ্দিনের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি : তিনি বর্তমানে মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এবং জেলা পরিষদ প্রশাসকের দায়িত্বে রয়েছেন। তিনি ১৯৬৭ থেকে ১৯৭২ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেছেন, ১৯৭৪ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর আগ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সরকারের নিয়োগপ্রাপ্ত বঙ্গবন্ধুর চীফ সিকিউরিটি অফিসার ছিলেন। ১৯৬৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসুর কার্যকরী সদস্য ছিলেন। পাশাপাশি ইকবাল হল ছাত্র সংসদের নির্বাচিত ক্রীড়া সম্পাদক এবং তৎকালীন মিস্টার ইস্ট পাকিস্তান ও তৎকালীন পাকিস্তান সাঁতার চ্যাম্পিয়ান ছিলেন। মোঃ মহিউদ্দিন মুক্তিযুদ্ধে তৎকালীন ঢাকা জেলার মুজিব বাহিনীর অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সাথে আলহাজ্ব মোঃ মহিউদ্দিন

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ