শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৬:৫৮ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

প্রান্তিক-চমকতারা’র “মায়া হরিণ”

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ রবিবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২২

বাংলাদেশ প্রতিবেদন আহমেদ সাব্বির রোমিও: চমকতারা আসছে ঈদে তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলের জন্য নির্মান করছেন ” মায়া হরিণ ” নামে নতুন মিউজিক ভিডিও। এই প্রথম উচ্চাঙ্গ নৃত্যের কোন নাচে তিনি তার এই নাচের কোরিওগ্রাফার প্রান্তিক দেব কে সাথে নিয়ে দর্শকদের সামনে হাজির হবেন। রিতিমতো টানা বেশ কিছু দিন এই নাচটির জন্য তালিম নিয়েছেন তিনি।

চমকতার সহশিল্পী প্রান্তিক দের বলেন, ” আমি মূলত একজন নৃত্য শিল্পী নাচের উপর উচ্চতর প্রশিক্ষণ নিয়েছি ভারতের দিল্লীতে আমার গুরুজী ছিলেও ওস্তাদ স্বপন মজুমদার। বাংলাদেশে নাচ শিখেছি আনিসুল ইসলাম হিরু স্যারের কাছে। বর্তমানে আমি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিষয়ে লেখাপড়া করছি। আমাকে চমকতার কাস্টিং ডিরেক্টর সালমান শুভ চৌধুরী ভাই যখন আমাকে এমন ঘরানার একটি কাজের প্রস্তাব দেন তখন আমি গানের কথা শুনে নাচের থিম তৈরী করি ভরত নাট্যম উড়িষ্যার ছৌ মৌয়ুরী ভাঞ্চ এর ফিকশনের সাথে আমরা অাধুনিক ঘারানার ধাচে ” হরিণ ” কে দশর্কদের সামনে উপস্থাপন করবো। তার আগে দর্শকদের বুঝার জন্য বলছি,ভরতনাট্যম ভারতীয় শাস্ত্রীয় নৃত্যকলাবিশেষ। দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যে এ নৃত্যকলার উৎপত্তি হয়েছে বলে ধারণা করা হয়। ভরতনাট্যম সাধারণ নারীরা পরিবেশন করে যদিও পরম্পরাগত ভাবে এই নৃত্যের গুরু পুরুষ হয়। ভরতনাট্যম নৃত্য পূৰ্ণাঙ্গ রুপে পরিবেশন করতে প্ৰায় দুঘণ্টা সময় লাগে।আর ছৌ নাচ বা ছো নাচ বা ছ নাচ একপ্রকার ভারতীয় আদিবাসী যুদ্ধনৃত্য। এই নাচ ভারতীয় রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড ও ওড়িশায় জনপ্রিয়। ছৌ নাচের আদি উৎপত্তিস্থল পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়া জেলা। উৎপত্তি ও বিকাশের স্থল অনুযায়ী ছৌ নাচের তিনটি উপবর্গ রয়েছে। যথা– পুরুলিয়া ছৌ, সরাইকেল্লা ছৌ ও ময়ূরভঞ্জ ছৌ। সরাইকেল্লা ছৌ-এর উৎপত্তি অধুনা ঝাড়খণ্ড রাজ্যের সরাইকেল্লা খরসোয়া জেলার সদর সরাইকেল্লায়। পুরুলিয়া ছৌ-এর উৎপত্তিস্থল পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়া জেলা এবং ময়ূরভঞ্জ ছৌ-এর উৎপত্তিস্থল ওড়িশার ময়ুরভঞ্জ জেলা। এই তিনটি উপবর্গের মধ্যে প্রধান পার্থক্যটি দেখা যায় মুখোশের ব্যবহারে। সরাইকেল্লা ও পুরুলিয়া ছৌ-তে মুখোশ ব্যবহৃত হলেও, ময়ূরভঞ্জ ছৌ-তে হয় না। ” চমকতারা বলেন, আমি সব সময় চেষ্টা করি আমার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে দর্শকদের নতুন নতুন চমক উপহার দিতে। তারই ধারাবাহিকতায় এবার ঈদে আসছে ” মায়া শিকারী “।এখানে দর্শকরা আমাকে নতুন রুপে দেখতে পাবেন। হরিন কে শিকার করতে এসে শিকারীই আমার ভালোবাসার জালে আটকে যায়! যে কারণে শুরুটাই হয়েছে এভাবে” আমি যে মায়া হরিন তুই বোকা শিকারী / মায়ার জালে ফেলবো তোকে করবো ভিখারি “। এই নাচের ভিডিওটির টিমের প্রত্যেকটি সদস্য অনেক পরিশ্রম করেছেন। আমি তাদের সবার কাছে কৃতজ্ঞ। বিশেষ করে আমার সহ শিল্পী দেব এর কথা না বললে তার প্রতি অবিচার করা হবে বেশ কয়েক দিন টানা মহড়া করে সে আমাকে নাচটি তুলে দিয়েছে। আমাদের সবার কষ্ট তখনই স্বার্থক হবে যখন দর্শকরা আমাদের এই ” মায়া হরিণ ” দেখে তৃপ্তি পাবেন। “


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ