শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৭:২৬ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

শিবির সন্দেহে জবির ১২ শিক্ষার্থী গ্রেপ্তার

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ শনিবার, ২৬ মার্চ, ২০২২

শিবির সন্দেহে জবির ১২ শিক্ষার্থী গ্রেপ্তার।

জবি প্রতিনিধিঃ

পুরান ঢাকার ধূপখোলায় মেস বাড়িতে অভিযান চালিয়ে শিবিরের কর্মী সন্দেহে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) বিভিন্ন বিভাগের ১২ শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করেছে কোতোয়ালি জোন পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর আটককৃতদের আদালতে পাঠানো হলে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।

শুক্রবার (২৫ মার্চ) ভোরে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযানে আটক হওয়া শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে শিবির সংশ্লিষ্ট কাগজপত্রসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র উদ্বার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

থানা সূত্রে জানা যায়, গ্রেপ্তার হওয়া শিক্ষার্থীরা হলেন, সংগীত ১৩ ব্যাচের আল-মামুন রিপন, ব্যবস্থাপনা ১৩ ব্যাচের মো: ফাহাদ হোসেন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান ১৩ ব্যাচের তৌহিদুর রহমান, লোক প্রশাসন ১৪ ব্যাচের মো: মেহেদী হাসান (মাহদী), ইতিহাস ১৪ ব্যাচের ইসরাফিল হোসেন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান ১৪ ব্যাচের ইব্রাহিম আলী, রাষ্ট্রবিজ্ঞান ১৫ ব্যাচেট মেহেদী হাসান ও ওবাইদুল ইসলাম, মনোবিজ্ঞান ১৫ ব্যাচের আবদুর রহমান (অলি), হিসাববিজ্ঞান ১৬ ব্যাচের রওসন উল ফেরদৌস, বাংলা ১৬ ব্যাচের শ্রাবন ইসলাম রাহাত, রাষ্ট্রবিজ্ঞান ১৬ ব্যাচের তৌহিদুর রহমান।

এবিষয়ে কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, ‘আটক করে তাদের আদালতে চালান করা হলে আদালত ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। রিমান্ডে গ্রেফতারকৃতরা অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। এছাড়াওজগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আরও কয়েকজন শিক্ষার্থীর নাম পেয়েছি তাদের কাছ থেকে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল বলেন, ‘বিষয়টি আমরা অবগত আছি। আমরা বলেছি কেউ নির্দোষ হলে যেনো হয়রানির শিকার করা না হয়।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ