সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ১১:৪৫ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

কুবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ বুধবার, ২৩ মার্চ, ২০২২

কুবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন।

রকিবুল হাসান/কুবি প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) মার্কেটিং বিভাগের ১৩ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী আনিছুর রহমানকে মারধরের ঘটনায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (২৩ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা ব্যানার, প্ল্যাকার্ড নিয়ে অংশগ্রহণ করে। ‘পড়াশোনা না প্রতিবাদ? বিশ্ববিদ্যালয় কিসের জন্য?’ ‘ওয়াকিলের বহিস্কার চাই’, ‘আমি পড়তে এসেছি, মার খেতে নয়, ইত্যাদি প্ল্যাকার্ড শিক্ষার্থীদের হাতে দেখা যায়।
এসময় তারা বিচারের দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে৷ ‘বিচারহীনতার সংস্কৃতি, আর কতদিন, আর কতদিন’। ভাই আমার হাসপাতালে, প্রশাসন নিরব কেন?’ ‘আমার ভাই রক্তাক্ত কেন, বিচার চাই, বিচার চাই।’ ‘ওয়াকিলের বহিষ্কার, করতে হবে, করতে হবে।’

মানববন্ধনে তরিকুল ইসলাম নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, শিক্ষার্থীরা এখানে পড়াশোনা করতে আসেন। কেউ মারামারি করে চোখ হারাতে আসে না। কেউ রাজনৈতিক পরিচয় নিয়ে আসে না মারামারি করার জন্য।
আরেক শিক্ষার্থী মোহাম্মদ রাসেল মিয়া বলেন, সিনিয়র জুনিয়র আমাদের মধ্যে বন্ধন রয়েছে। অপরাধী যে দলের হোক না কেন তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। সেই অপরাধী যদি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার হয় তাহলে আর কোন আনিস আর রক্তাক্ত হবে না। এর জন্য প্রশাসনের কাছে আমাদের আকুল আবেদন।
মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ বলেন, এই ঘটনা খুবই মর্মাহত করেছে আমাকে। এই ধরনের অমানবিক কর্মকাণ্ড কোন মানুষের দ্বারা হতে পারে না। হলের অনেক জুনিয়র আছে যারা সিনিয়র নেতা দ্বারা হেনস্তার শিকার হয়েছে, যাদের বিচারে আমি বিন্দুমাত্র ছাড় দেইনাই। আমি কথা দিচ্ছি, এই ঘটনার শক্ত বিচার হবে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার (২১ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হল শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াকিল আহমদ মারধর করে মার্কেটিং বিভাগের ১৩ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী আনিছুর রহমানকে। এতে মারাত্মক আহত হয় আনিছুর।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ