শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৭:১৫ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

বিদ্যুৎ বিভ্রাটে স্থবির কুবির প্রশাসনিক কার্যক্রম

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ রবিবার, ১৩ মার্চ, ২০২২

বিদ্যুৎ বিভ্রাটে স্থবির কুবির প্রশাসনিক কার্যক্রম।

রকিবুল হাসান/কুবি প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) স্বতন্ত্র বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকায় স্থবির হয়ে যায় একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম।

রবিবার (১৩ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয় ও এর আশেপাশের এলাকায় করা হয় লাইন মেরামতের কাজ। ফলে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত বন্ধ ছিলো বিদ্যুৎ সংযোগ। এতে ভোগান্তিতে পড়তে হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের। পাশাপাশি অন ডে তে লাইন মেরামতের কাজ করায় বিঘ্নিত হয় একডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম।
প্রশাসনিক ও একাডেমিক বিভিন্ন দপ্তর ঘুরে দেখা যায়, বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ফলে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অলস সময় পার করছেন। এবং দুপুরের পর অধিকাংশ দপ্তরই ছিলেন না কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যুৎ সংযোগটি একাধারে কুমিল্লা বার্ড, পলিটেকনিক, ক্যাডেট কলেজ, টিটিসিসহ কোটবাড়ী অঞ্চলের প্রায় সবগুলো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সংযুক্ত। ফলে লাইন মেরামত করা হলে স্বতন্ত্র সংযোগ না থাকায় বন্ধ হয়ে যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যুৎ সংযোগ।
বিষয়টি নিয়ে বাংলা বিভাগের ১০ম ব্যাচের শিক্ষার্থী মু.নুর উদ্দিন রাসেল বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বতন্ত্র বিদ্যুৎ ব্যবস্থা থাকা জরুরি। নাহলে ভোগান্তি পোহাতে হয় শিক্ষক শিকার্থীদের। প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, যত দ্রুত সম্ভব এই সমস্যা সমাধানে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য।
ছাত্র পরামর্শক ও নির্দেশনা কার্যালয়ের পরিচালক ড. মোহা হাবিবুর রহমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে একাডেমিক, প্রশাসনিক কার্যক্রমের পাশাপাশি গবেষণা চলে। বিদ্যুৎ না থাকলে তা সম্ভব হয়না। যেমন আমার একটি জরুরি কাগজ প্রিন্ট করার দরকার ছিল আজকে। কিন্তু বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ফলে তা সম্ভব হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বতন্ত্র বিদ্যুৎ ব্যবস্থা থাকা খুবই জরুরি। আশা করবো বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে স্বতন্ত্র বিদ্যুৎ ব্যবস্থার কথা ভাববে।
রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগ খুবই প্রয়োজনীয়। এরজন্য আলাদা সাবস্টেশন প্রয়োজন। আমাদের নতুন ক্যাম্পাসের নকশায় সাবস্টেশন ধরা আছে। কিন্তু বর্তমান ক্যাম্পাস নিয়ে তেমন পরিকল্পনা নেই। বিকল্প হিসেবে আমরা ইতিমধ্যে প্রশাসনিক ভবনের দফতর প্রধানদের কক্ষে জেনারেটরের ব্যবস্থা করেছি। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সাথে কথা বলে আমরা একাডেমিক ভবনের জন্য জেনারেটরের ব্যবস্থা করবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ