বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ১১:১৯ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

তাহিরপুরে যুবক নিহতের ঘটনায় প্রশাসনকে প্রশ্ন বিদ্ধ করতে তৎপর একটি চক্র

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ শনিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

তাহিরপুরে যুবক নিহতের ঘটনায় প্রশাসনকে প্রশ্ন বিদ্ধ করতে তৎপর একটি চক্র।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার যাদুকাটা নদীর পাড়ের মাটি ধসে গর্ত পড়ে গত ১৬ই জানুয়ারী(শুক্রবার বিকেলে)আজহারুল ইসলাম(৩০)নামক এক যুবক নিহত হয়। এরপর পরিবারের অনুরুধে ময়না তদন্ত ছাড়াই জানাজা নামাজ শেষে দাফন করা হয় প্রকাশ্যে। এ ঘটনাকে ভিন্ন খাতে নিতে তৎপর রয়েছে একটি চক্র। কিন্তু এই ঘটনায় নেই পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ। নিহত যুবক উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ঘাগটিয়া আর্দশ গ্রাম টেকের গাও গ্রামের নুর ছালামের ছেলে।

এরপরও এই ঘটনাকেই হাতিয়ার করে একটি চক্র কেন আর কোন উদ্দেশ্যে ঘটনার এক মাস পর এই ঘটনাটি ভিন্ন ভাবে উপস্থাপন করে প্রশাসনকে প্রশ্ন বিদ্ধ ও জনমনে বিভ্রান্ত ছড়ানোয় জনমনে এবং নিহতের পরিবারেও চরম ক্ষোব বিরাজ করছে।

সরেজমিনে স্থানীয় এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানাযায়,উপজেলা বাদাঘাট ইউনিয়নের ঘাগটিয়া আর্দশ গ্রাম টেকের গাও গ্রামের নুর ছালামের ছেলে আজহারুল ইসলাম(৩০)যাদুকাটা নদীর পাড় ধরে হাটতে গিয়ে বিকেলে অসাবধানতা বশত পাড়ের মাটি ধসে একটি গর্তের পড়ে যায়। সেখানেই সে গুরুত্বতর আহত হলে স্থানীয়রা ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে দ্রুত বাদাঘাট বাজারে একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে গেলে তাকে মৃত ঘোষণা করে দায়িত্বরত চিকিৎসকগন। খবর পেয়ে উপপরিদর্শক মাহমুদুল হক নিহতের লাশের সুরত হাল রির্পোট তৈরী করার পর পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ না থাকায় বর্তমান চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন ও সাবেক চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিনসহ গন্যমান্য ব্যক্তিগনের উপস্থিতে পুলিশের উর্ধবতন কর্মকর্তাকে পরিবারের সদস্যরা লাশ ময়না তদন্ত ছাড়াই দাফন করার জন্য অনুরোধ করলে নিহতের পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করার পর লাশ দাফন করা হয় প্রকাশ্যে।

এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নিহতের ভাই হেফাজুল ইসলাম জানান,আমার ভাইয়ের মৃত্যুর ঘটনায় আমাদের কোন অভিযোগও নেই। তাই লাশের ময়না তদন্ত না করার জন অনুরোধ করলে প্রশাসনের কাছে তারা লাশ আমাদের কাছে হস্তান্তর করার পর এলাকা বাসীকে নিয়ে জানাজা নামাজ পড়ার পর লাশ দাফন করি প্রকাশ্যে।

বাদাঘাট পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ(বিট অফিসার) উপপরিদর্শক জয়নাল আবেদীন বলেন,ঐ যুবকের পরিবারের অনুরোধেই লাশ ময়না তদন্ত করা হয় নি। কারন তাদের কারো প্রতি কোন অভিযোগ ছিল না। তাই সে অনুযায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।

সাবেক চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন জানান,নিহতের পরিবারের সকল আত্নীয় স্বজনের দাবীর প্রেক্ষিতে নিহতের পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করে প্রশাসন। তখন আমি বর্তমান চেয়ারম্যান সহ স্থানীয় এলাকাবাসী ও গন্যমান্য ব্যক্তিগন উপস্থিত ছিলাম।

এ বিষয়ে তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল লতিফ তরফদার জানান,নিহত ঐ যুবকের পরিবারের কোন অভিযোগ নেই। লাশের সুরত হাল রির্পোট তৈরী করে মর্গে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিলে পরিবারের পক্ষ থেকে লাশ ময়না তদন্ত না করার জন্য আবেদন করলে মানবিক দিক বিবেচনা করে উর্ধবতন কতৃপক্ষকে জানিয়ে মর্গে না পাঠিয়ে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ