বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ১০:৪৯ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

টেনিস তারকা নোভাক জোকোভিচ কেন কোভিড ভ্যাকসিন বিরোধী?

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ বুধবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

টেনিস তারকা নোভাক জোকোভিচ কেন কোভিড ভ্যাকসিন বিরোধী?

পুরুষদের টেনিসে বিশ্বের এক নম্বর খেলোয়াড় নোভাক জোকোভিচ বলেছেন কোভিড ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য তাকে চাপ দেওয়া হলে তিনি ভবিষ্যতে কোনো টুর্নামেন্ট থেকে সরে দাঁড়াতেও দ্বিধা করবেন না।

বিবিসির সাথে এক একান্ত সাক্ষাৎকারে সার্বিয়ান এই টেনিস সুপারস্টার বলেন তিনি ভ্যাকসিন-বিরোধী আন্দোলনে জড়িত নন, কিন্তু ব্যক্তিগত পছন্দের অধিকারে বিশ্বাসী।

ভ্যাকসিন না নেওয়ার প্রশ্নে তিনি আসন্ন ফ্রেঞ্চ ওপেন এবং উইম্বলডন শিরোপাও ত্যাগ করতে রাজি কিনা – এই প্রশ্নে তিনি বলেন, “হ্যাঁ তেমন মূল্যও যদি আমাকে দিতে হয়, আমি তাতে রাজি।”

টিকা না নেওয়ার কারণে সার্বিয়ান এই টেনিস খেলোয়াড়কে গতমাসে অস্ট্রেলিয়া থেকে বের করে দেওয়া হয়।

তা নিয়ে জোকোভিচ বলেন, সবেমাত্র কোভিড সংক্রমণ থেকে ওঠার কারণে তার কাছে আপাতত ভ্যাকসিন না নেওয়ার অনুমতিপত্র ছিল।

কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন মন্ত্রী তার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তে তার ভিসা বাতিল করে দেন। মন্ত্রীর যুক্তি ছিল – তা না করলে অস্ট্রেলিয়ায় জন-অসন্তোষ তৈরি হতে পারে এবং ভ্যাকসিন বিরোধীরা উৎসাহিত হতে পারে।

“আমি কখনই ভ্যাকসিন বিরোধী ছিলাম না,” বিবিসিকে বলেন জোকোভিচ। তিনি বলেন, বাচ্চা বয়সে তিনি ভ্যাকসিন নিয়েছেন। “কিন্তু আমি সবসময় শরীরের ভেতর আমি কী ঢোকাবো সে ব্যাপারে ব্যক্তিগত পছন্দের স্বাধীনতার পক্ষে।”

জোকোভিচ বলেন তিনি আশা করেন আগামীতে কিছু টুর্নামেন্টে ভ্যাকসিন বাধ্যবাধকতা শিথিল হবে এবং তিনি আরো “অনেক বছর” খেলতে পারবেন। কিন্তু একই সাথে তিনি বলেন, ভ্যাকসিন নিতে বাধ্য করা হলে তিনি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা জেতার আকাঙ্ক্ষা বিসর্জন দিতে কার্পণ্য করবেন না।

“কারণ আমার নিজের শরীরের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকারের মূল্য যে কোনো শিরোপার চেয়ে আমার কাছে অনেক বেশি,…নিজের শরীরের স্বাভাবিক প্রক্রিয়ার সাথে খাপ খাইয়ে চলার যথাসম্ভব চেষ্টা আমি করি।”

তিনি বলেন তিনি সবসময় “সুস্বাস্থ্য, সুস্থতা, পুষ্টি” ইত্যাদি বিষয়গুলোকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন।

জোকোভিচ বলেন, খাদ্য এবং ঘুমের প্যাটার্ন পরিবর্তন করে অ্যাথলেট হিসাবে তিনি যে উপকার পেয়েছেন সেটি ভ্যাকসিন না নেওয়ার সিদ্ধান্তে তাকে অনেকটাই প্রভাবিত করেছে।

তবে, ৩৪ বছরের জোকোভিচ বলেন, ভবিষ্যতে ভ্যাকসিন নেওয়ার সম্ভাবনা তিনি নাকচ করছেন না। “কারণ আমরা সবাই একসাথে মিলে কোভিড নিয়ন্ত্রণে একটি সর্বোত্তম পন্থা খোঁজার চেষ্টা করছি।” বিবিসি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ