বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ১০:১৯ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

কুষ্টিয়ায় স্ত্রীকে হত্যায় দায়ে স্বামী গিয়াস উদ্দিনের যাবজ্জীবন

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ সোমবার, ৩ জানুয়ারি, ২০২২

কুষ্টিয়ায় স্ত্রীকে হত্যায় দায়ে স্বামী গিয়াস উদ্দিনের যাবজ্জীবন।

নিজস্ব প্রতিবেদক :

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী গিয়াস উদ্দিনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেইসঙ্গে তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

কুষ্টিয়া অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. তাজুল ইসলাম সোমবার (০৩ জানুয়ারি) দুপুরে এ রায় দেন। আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গিয়াস উদ্দিন ভেড়ামারা উপজেলার ধরমপুর ইউনিয়নের পাটিয়াকান্দি গ্রামের মৃত ইমান আলীর ছেলে। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
আদালত সূত্রে জানা যায়, পারিবারিক কলহের জেরে ২০১৩ সালের ১৭ অক্টোবর রাত ১টার দিকে মাফলার দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে শ্বাসরোধ করে স্ত্রী আমেনা খাতুনকে (৩৭) হত্যা করে স্বামী গিয়াস উদ্দিন। পরে ভেড়ামারা থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। হত্যাকাণ্ডের দিনই এলাকাবাসী গিয়াসকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

এ ঘটনায় ২০১৩ সালের ১৮ অক্টোবর নিহতের ভাই লিটন শেখ বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানার একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে মামলার তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ৯ সেপ্টেম্বর আসামির বিরুদ্ধে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

এরপর আদালত এ মামলায় সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে ৩ জানুয়ারি রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন। সাক্ষীর সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আদালত এ রায় দেন। আদালতে আসামির উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করা হয়। রায় ঘোষণার পর পরই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।
আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী বলেন, স্ত্রীকে হত্যা মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় স্বামী গিয়াস উদ্দিনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ