বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ১০:৪৪ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

সাতক্ষীরায় নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর : আনুলিয়া ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতিসহ ২৫ জনের নামে মামলা

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ শনিবার, ১ জানুয়ারি, ২০২২

সাতক্ষীরায় নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর : আনুলিয়া ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতিসহ ২৫ জনের নামে মামলা।

আব্দুর রহিম/সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি:

সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার ৯নং আনুলিয়া ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাংচুর ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত ব্যানার ও পোষ্টার ছিড়ে আগুনে পুড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন সহ ২৫ নামে থানায় মামলা হয়েছে। আনুলিয়া ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোঃ শাহাবুদ্দীন সানা বাদী হয়ে গতকাল শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) অশাশুনি থানায় এই মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, বাদী মোঃ শাহাবুদ্দীন সানা আশাশুনি উপজেলার ৯নং আনুলিয়া ইউনিয়নে জননেত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক প্রদত্ত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী। মামলার ১ নং আসামী মোঃ রুহুল কুদ্দুস আনারস প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে তার বিপক্ষে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী রুহুল কুদ্দুসসহ অন্যান্য আসামীরা নৌকা প্রতীকর প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা ও নির্বাচনী বিভিন্ন কার্যক্রমে বিঘ্ন সৃষ্টি করা সহ তার ও কর্মী সমর্থকদের মারধর ও খুনজখম করার ষড়যন্ত্র করে আসছিল। আনুলিয়া ইউনিয়নের বল্লভপুর গ্রামের আমতলা মোড়ে নৌকা প্রতীকের বাদীর একটি নির্বাচনী অফিস রয়েছে। এই অফিসের দক্ষিন পাশে ১ নং আসামীর আনরস প্রতীকের একটি নির্বাচনী অফিস আছে।

২৯ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে নৌকা প্রতীকের অফিসে বসে বাদীর কর্মী সমর্থকরা কথাবার্তা বলছিল। এমতাবস্থায় বিছট গ্রামের রশিদুল আলমের ছেলে আনুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন না পেয়ে বাদী শাহাবুদ্দীন সানার প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে বল্লভপুর আমতলা মোড় নৌকা প্রতীকের অফিসের সামনে উপস্থিত হয়ে বাদীর কর্মী সমর্থকদের হুমকি দিয়ে বলে, তোদেরকে নৌকা প্রতীকের সমর্থনকরা সহ এখানে অফিস করতে বলেছে কে ? এই বলে আসামী আলমগীর আলম লিটন আনারস প্রতীকের অফিসের মধ্য থেকে দা, লোহার রড ও লাঠিসোটা সহকারে অপেক্ষায় করা এজাহার নামীয় ও অজ্ঞাতনামা আসামীদেও ডাক দিয়ে বাদীর নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী অফিসের সামনে নিয়ে আসে এবং তার কর্মীসমর্থকদের সাথে তর্কাতার্কি শুরু করে দেয়।

তর্কাতার্কির একপর্যায় তারা বাদীর কর্মী সমর্থকদেরকে মারপিট শুরু করে। এসময় আসামীরা নির্বাচনী আচারনবিধি ভঙ্গ করে বাদীর নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত ব্যানার ও পোষ্টার ছিড়ে আগুনে পুড়িয়ে প্রায় ৭৫ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন করে। এতে তার বেশ কয়েকজন কর্মীসমর্থক গুরুতর আহত হয়। আহত শাহিনুর রহমানকে আশাশুনি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এঘটনায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোঃ শাহাবুদ্দীন সানা বাদী হয়ে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ রুহুল কুদ্দুসকে ১নং আসামী ও আনুলিয়া ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি বর্তমান চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন সহ ২৫ জনের নাম উল্লেখপূর্বক অজ্ঞাতনামা আরো ১৫/২০ জনের নামে আশাশুনি থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-১৫, তারিখ-৩১.১২.২১।

আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বাদীর অভিযোগের সত্যতা যাচাই বাছাই করে মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।
আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ