মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:২২ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

গান-বাজনার পরিবর্তে কন্যার বিবাহের অনুষ্ঠানে কোরআন তেলাওয়াতের ব্যবস্থা করলেন বাবা

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ রবিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১

গান-বাজনার পরিবর্তে কন্যার বিবাহের অনুষ্ঠানে কোরআন তেলাওয়াতের ব্যবস্থা করলেন বাবা।

সোহেল রানা/বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি:

বাগেরহাটঃ গান-বাজনার পরিবর্তে কন্যার বিয়ের অনুষ্ঠানে মাদ্রাসার ছাত্রদের কন্ঠে চলছে পবিত্র কোরআনের তেলাওয়াত। এই ব্যতিক্রমধর্মী বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে এলাকায় নজিরবিহীন দৃষ্টি স্থাপন করেছেন মোংলা উপজেলার আবু সাঈদ।

রবিবার (১৯ ডিসেম্বর) বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার চিলা ইউনিয়নের জয়মনি এলাকার আবু সাইদ শেখের বড় মেয়ে সাদিয়া আক্তার (১৯) এর সাথে একই গ্রামের জাহাঙ্গীর ফরাজির পুত্র হাফেজ মোঃ রিয়াজের (২৪ ) এর বিয়ের অনুষ্ঠানে গান বাজনা না বাজিয়ে মাদ্রাসার ছাত্রদের দাওয়াত দিয়ে কোরআন তেলওয়াতের ব্যবস্থা করেছেন কনের বাবা। এই ব্যাতিক্রমী আয়োজনে সকলের প্রশংসার পাত্র হয়েছেন তিনি। এলাকাবাসী মনে করেন, এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে অপসংস্কৃতি দূর হয়ে সুস্থ সংস্কৃতির প্রসার ঘটবে।

এ বিষয়ে কনের বাবা বলেন, আমার মেয়ে সাদিয়া আক্তারের সাথে জাহাঙ্গীর ফরাজির পুত্র হাফেজ রিয়াজের সাথে গত দেড় মাস আগে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে কাবিন করে রেখেছিলাম। আজ ইসলামি শরিয়ত অনুযায়ী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্বামীর হাতে তুলে দিচ্ছি। আর এ জন্যই আমি এ কোরআন তেলাওয়াতের আয়োজন করেছি। আমি বিশ্বাস করি এতে আমার মেয়ের সংসার জীবন অনেক সুখ ও সাচ্ছন্দ্যে কাটবে।

চিলা ইউপি চেয়ারম্যান গাজী আকবর হোসেন বলেন, বিয়ের প্রথম থেকেই আমি সব কিছু জানি।কাবিনের সময়ও আমি নিজে ঊপস্থিত ছিলাম। মেয়ের বাবা আবু সাইদ একজন নামাজি ও ভালো মনের মানুষ। আর এ জন্যই তার এমন আয়োজন। আমি এ আয়োজনে ব্যক্তিগতভাবে খুব খুশী। আমার ইউনিয়নে এর আগে এমন কোন আয়োজন হয়নি। এ ব্যক্তিক্রমি আয়োজনের জন্য আমি তাকে ধন্যবাদ জানাই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ