মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:১৭ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

সিরাজদিখানে নৌকার মনোনয়ন পেলেন ধর্ষন মামলার আসামী

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ বুধবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১

সিরাজদিখানে নৌকার মনোনয়ন পেলেন ধর্ষন মামলার আসামী।

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি:

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার ৪র্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কোলা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান মীর লিয়াকত আলী মুন্সীগঞ্জের কারাবাসে থেকেই আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেলেন । ২০১৭ সালে উপজেলার কোলা ইউনিয়ন পরিষদের কক্ষে এক স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের শিকার হয়। ওই ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পরে । ধর্ষনের ঘটনার ৯ মাস পর ছাত্রীর মা বাদী হয়ে সিরাজদিখান থানায় ধর্ষন মামলা করেন । সেই মামলর প্রধান আসামী কোলা ইউপি চেয়ারম্যান মীর লিয়াকত আলী । সেই মামলার কারাবাসে থেকেই তিনি নৌকার মনোনয়ন পান ।

নৌকার মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়ে সিরাজদিখান থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘মীর লিয়াকত আলী জেলে রয়েছেন। তার পক্ষে আমাদের কাছে সিভি পাঠানো হয়।উপজেলা থেকে যে কজয়জন নৌকার মনোনয়ের জন্য আবেদন করেছেন, সবার আবেদন জেলা আওয়ামীলীগের কাছে পাঠানো হয়। এখান থেকে কারো নাম বাদ দেয়ার এখতিয়ার আমাদের নেই। জেলা আওয়ামী লীগ যাকে ইচ্ছা বাদ দিয়ে নাম কেন্দ্রে পাঠায় । মীর লিয়াকত আলীর নামটি তারা কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন। ’

এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. লুৎফর রহমান বলেন, মীর লিয়াকত আলী সিরাজদীখান উপজেলার কোলা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগের সদস্য । তিনি বর্তমানে একটি মামলায় অভিযুক্ত হয়ে জেলে আছেন। তবে অভিযোগটি বিচারাধীন। তাঁর পক্ষে তাঁর ছেলে চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে আবেদন জমা দেন। আমরা অন্যদের সঙ্গে তাঁর নামের তালিকাটিও কেন্দ্রে পাঠাই এবং সেখানেও আমরা উল্লেখ করে দিই যে তিনি বর্তমানে জেলে আছেন। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ তাঁকে কোলা ইউনিয়নে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়ে নাম ঘোষণা করেছে।’

কোলা ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সভাপতি মো.কপাসের বলেন,ধর্ষনের ৯ মাস পর ধর্ষনের শিকার স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে সিরাজদিখান থানা মামলা করেন । চেয়ারম্যান সাহেব সেই মামলায় অনেক দিন পলাতক থাকার পর গত আড়াই মাস আগে কোর্টে হাজিরা দিতে গেলে বিজ্ঞ আদালত তাকে জেলে পাঠায় এবং বর্তমানে সে জেলে আছে । ’

সিরাজদিখান থানার ওসি মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন বলেন,ঘটনাটি অনেক আগের তবে ধর্ষনের শিকার স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মামলা করেন এর চেয়ে বেশী কিছু আমি জানি না ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ