বৃষ্টির কারণে মিরপুর টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা ভেস্তে যাওয়ায় স্টেডিয়ামের পরিবর্তে টিম হোটেলে ছোট্ট সভা করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। নিশ্চিতভাবেই আলোচনার মূল বিষয়বস্তু ছিল নিউজিল্যান্ড সফর থেকে সাকিব আল হাসানের ছুটি প্রসঙ্গ। সফরের জন্য দল ঘোষণার পর পারিবারিক কারণে ছুটি চেয়ে আনুষ্ঠানিক চিঠি দেন সাকিব। প্রায় ঘণ্টাখানেকের বৈঠক শেষে সেই চিঠি নিয়ে সিদ্ধান্ত জানান বিসিবি সভাপতি।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, আমরা যে জিনিসটা বলে আসছি সেটি হচ্ছে কেউ যদি খেলতে না চায়, বিশ্রাম চায়, বিরতি চায় এতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। তবে যে জিনিসটির দিকে আমরা জোর দেবো সেটা হচ্ছে, আমরা আগাম জানতে চাই। একটা সিরিজের আগে হঠাৎ করে এমনটা হলে আমাদের জন্য সমস্যা হয়ে যায়। কাজেই, জানুয়ারি থেকে আমরা যে ব্যবস্থাটি করতে যাচ্ছি তা হলো, কারও কোনো ব্রেক লাগলে যেন আগে থেকেই জানায় আমাদের।

গণমাধ্যম থেকে বোর্ড সভাপতি, সবাই জানতেন সাকিবের ছুটি প্রসঙ্গে। অধিনায়ক মমিনুল হক’সহ টিম ম্যানেজমেন্টের সবাই সাকিবকে ছাড়াই পরিকল্পনা করেছে নিউজিল্যান্ড সফরের। তাহলে কেন এই অলরাউন্ডারকে রেখে দল ঘোষণা করলো বোর্ড? আর দল ঘোষণার পরই বা কেন বিসিবিতে চিঠি পাঠালেন সাকিব?

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এ প্রসঙ্গে বলেন, আমরাও জানতাম এ ব্যাপারে। সাকিব আমাদের অনানুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছিল। আর এমনটাই হয়ে আসছিল আগে থেকেই। তবে তাতে করে কিছু অনিশ্চয়তা তৈরি হয়। তাই এখন আমরা চর্চাটিকে ভিন্ন করতে চাই। আনুষ্ঠানিকভাবে জানানোর চর্চাই শুরু করতে যাচ্ছি আমরা।