বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০১:৪৭ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

বারি’তে জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল ও বার্ষিক কর্মসম্পাদন ব্যবস্থাপনা শীর্ষক কর্মশালা

মোহাম্মদ মনজুরুল হক গাজী, গাজীপুর।
প্রকাশকালঃ সোমবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২১

বারি’তে জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল ও বার্ষিক কর্মসম্পাদন ব্যবস্থাপনা শীর্ষক কর্মশালা 

মোহাম্মদ মনজুরুল হক গাজী মো

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এর প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ উইং এর আয়োজনে ‘জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল ও বার্ষিক কর্মসম্পাদন ব্যবস্থাপনা’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালা ০৬ ডিসেম্বর , সোমবার ইনস্টিটিউটের সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। কর্মশালায় বারি’র বিভিন্ন বিভাগ ও কেন্দ্রের ৩০ জন বিজ্ঞানী ও কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করেন।

সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কর্মশালার উদ্বোধন করেন বারি’র মহাপরিচালক ড. দেবাশীষ সরকার। পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ) ড. মুহাম্মদ সামসুল আলম এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিচালক (সেবা ও সরবরাহ) ড. মো. কামরুল হাসান ও পরিচালক (গবেষণা) ড. মো. তারিকুল ইসলাম। কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ উইং এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. আবদুর রাজ্জাক এবং কর্মশালাটি পরিচালনা করেন প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ উইং এর ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. ইমরান খান চৌধুরী।

কর্মশালার উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বারি’র মহাপরিচালক ড. দেবাশীষ সরকার বলেন, আমরা যারা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী তাদের প্রত্যেকেরই নির্ধারিত দায়িত্ব রয়েছে। আমরা আমাদের নিজেদের জায়গা থেকে যে যতটুকু দায়িত্ব পালন করছি সেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সুশাসন ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণে এটা জরুরী। একই সাথে সুশাসন ও শুদ্ধাচার সম্পর্কে আমাদের সঠিক ধারণা থাকতে হবে এবং এর গুরুত্বপূর্ণ আমাদের উপলব্ধি করতে হবে। আমি আশা করি এই কর্মশালার মাধ্যমে অংশগ্রহণকারীরা শুদ্ধাচারের বিভিন্ন ধরনের কলাকৌশল সম্পর্কে সম্যক ধারণা লাভ করবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ