বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ১১:০৮ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের ফলে ফসল নষ্ট কৃষকের মাথায় হাত

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ সোমবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২১

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের ফলে ফসল নষ্ট কৃষকের মাথায় হাত।

জুয়েল নাগ/মিরসরাইঃ

মিরসরাইয়ে গত তিনদিন ধরে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে সৃষ্ট বৃষ্টিতে আমনের কাটা ধান মাঠেই ঝড়ে যাচ্ছে।অসময়ের বৃষ্টির কারনে অনেক কৃষকের ধান তোলার বাড়তি প্রস্তুতি না থাকায় ধান ঘরে তুলতে পারেনি।মিরসরাইয়ে কিছু কিছু জায়গায় ৫০% কিছু জায়গায় ৭০% ধান কাটা হয়েছে। এবছর ২১ হাজার ৭০০ হেক্টর জমিতে আমনের আবাদ হয়েছে।

এতে অনেক কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত বলে জানান স্থানীয় কৃষকরা। উপজেলার জোরারগন্জের দেওয়ানপুরের কৃষক বিভূতি মজুমদার বলেন, আমার কিছু ধান কাটা অবস্থায় জমিতে পড়ে আছে জমিতে পানি জমে যাওয়ার ফলে ধান তোলা যাচ্ছে না। ভেজা ধান তোলা কষ্টকর এবং ধানের রং কালো হয়ে যায় তাতে দাম কমে যায়। আমার ৩০% ধান নস্ট হয়ে গেছে।

উপজেলার মিঠানালার কৃষক শামীম মিঞা জানান সমায় ও লোকের অভাবে ধান কাটতে পারিনি অর্ধেক ধান নষ্ট হবে। তবে ধানের সাথে সাথে খড়গুলো সব নষ্ট হবে।বাজারে খড়ের অনেক চাহিদা থাকে।
অপরদিকে শীতের মৌসুমে উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় আলু,কপি,ঢেরস,টমেটোর আবাদ হচ্ছে।অসময়ের বৃষ্টিতে ফসল নষ্টের খবর পাওয়া যাচ্ছে। উপজেলার হাজীশ্বরাই গ্রামের কৃষক উজ্জল বলেন আমার কিছু আলুর এবং মরিচ চাষ ছিলো এই বৃষ্টিতে সব পচে যাবে,এতে আমার ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি হবে। অনেক মাঠে ঢেরসের আবাদ হয়েছে বেশীরভাগ গাছ মরে যাওয়ার সংঙ্কা আছে।

এ বিষয়ে উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা রুঘুনাথ নাহার সাথে যোগাযোগ করলে উনি কিছুকিছু এলাকা পর্যবেক্ষক করেছেন বলে জানান। অসময়ের বৃষ্টি সব ধরনের ফসলের জন্য ক্ষতি। তিনি কৃষকদের পানি নিষ্কাশন জন্য জমির আল কেটে দেওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ