বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০২:৫৪ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

কাপাসিয়ায় স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা, ঘাতক স্বামী ইমন গ্রেফতার

মাহাবুর রহমান, গাজীপুর!!
প্রকাশকালঃ শনিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২১

কাপাসিয়ায় স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা, ঘাতক স্বামী ইমন গ্রেফতার

শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে এসে স্ত্রীকে গলাটিপে (শ্বাসরুধ করে) হত্যার পর জানালা ভেঙ্গে পালিয়ে যাওয়া ঘাতক স্বামী ইমনকে শ্রীপুর থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

৪ ডিসেম্বর, শনিবার গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার সিংহশ্রী ইউনিয়নের বড়বেড় গ্রামে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

অভিযুক্ত ইমন (১৯) শ্রীপুরের বরমী ইউনিয়নের বরকুল গ্রামের এমদাদুল হকের ছেলে। নিহত মারুফা (১৪) কাপাসিয়ার সিংহশ্রী ইউনিয়নের বড়বেড় গ্রামের মাসুদ মিয়ার মেয়ে।

নিহতের বাবা মাসুদ মিয়া জানান, মাসুম মিয়ার দ্বিতীয় সংসারের বড় মেয়ে মারুফা (১৪) শ্রীপুরের বরকুল গ্রামের নানার বাড়িতে থেকে বরমী বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণিতে পড়াশোনা করতো। স্কুলে আসা-যাওয়ার সূত্রে একই গ্রামের ঈমনের সঙ্গে তার প্রেমেরে সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরে তারা একে অপরকে প্রায় বছর খানেক আগে বিবাহ বন্ধে আবদ্ধ হয়। সেই সুবাদে ইমন শুক্রবার দুপুরে তার শ্বশুর বাড়ী বেড়াতে যায়। রাতের খাবার খেয়ে তারা স্বামী-স্ত্রী ঘুমিয়ে পড়ে। সকালে মেয়ের বাবা ঘুম থেকে উঠে ঘরের দরজা বন্ধ দেখতে পেয়ে ঘরের জানালা দিয়ে তার মেয়ের লাশ দেখতে পায়। জামাই কে ঘরে দেখতে না পেয়ে জামায়ের মোবাইলে কল করলে সে আমার মেয়েকে খুন করেছে বলে স্বীকারোক্তি জানায়।

সরেজমিন জানাযায়, ইমন কর্মজীবী না হওয়ায় তাদের দাম্পত্য জীবনে প্রায়ই বিবাদ লেগে থাকতো। সম্প্রতি ইমন মাওনা এলাকার একটি পোশাক কারখানায় চাকুরী নেয়। গত দুই মাস যাবত মারুফা তার বাবার বাড়ীতেই ছিল। ইমন শুক্রবার দিন বেড়াতে এসে স্ত্রী মারুফা কে হত্যা করে পালিয়ে যায় শনিবার ভোরে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

ঘাতক স্বামী ইমন মোবাইলে জানান, তার (স্ত্রী) সাথে আমার সাংসারিক বিষয়ে কথা কাটাকাটি হয়। সে আমার সাথে খারাপ আচরণ করে। পরে আমি বলছি তোকে মেড়ে আমিও মরে যাব। আমি খুন করছি, আমিও মরে যাব, বেশি ক্ষণ বাচবো না আব্বা (শ্বশুর)। শ্বশুর-জামায়ের মোবাইলে কথোপকথনের রেকর্ড থেকে সংগৃহীত।

পুলিশের অভিযান সূত্র জানায়, শ্রীপুরের সাতকামাই বাজার এলাকার রেললাইনের পাশ থেকে আসামি ইমন কে গ্রেফতার করা হয়েছে।

কাপাসিয়া থানার ওসি এফ এম নাছিম বলেন, আইনগত ব্যাবস্থা প্রক্রিয়াধীন। আসামি ইমনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ