বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০২:৫৫ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

মুখরোচক আলোচনায় শীর্ষে আওয়ামীলীগ নেতার কেন্দ্রে নৌকা প্রতীক ৩ ভোট

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ শুক্রবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২১

মুখরোচক আলোচনায় শীর্ষে আওয়ামীলীগ নেতার কেন্দ্রে নৌকা প্রতীক ৩ ভোট।

মোঃ রিমন খান/সরাইল প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল সদর ইউনিয়ন পরিষদ ( ইউপি) নির্বাচনে উপজেলা যুবলীগের দুই শীর্ষ নেতার নিজ কেন্দ্র “স্বল্প নোয়াগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যন প্রার্থী সেলিম খন্দকার মাত্র ৩ ভোট পেয়েছেন।

এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ জনাকীর্ণ বিভিন্ন স্থানে আলোচনায় স্থান পেয়েছে নৌকা প্রতীকে মাত্র ৩ ভোট পাওয়ার বিষয়টি। বিভিন্ন মহলে চলছে মুখরোচক আলোচনা সমালোচনা।

জানা গেছে, সরাইল সদর ইউনিয়নের “স্বল্প নোয়াগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়” ভোট কেন্দ্র এলাকায় উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আশরাফ উদ্দিন মন্তু ও সাধারণ সম্পাদক উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান শের আলম মিয়ার জন্মস্থান।

শের আলমকে সরাইলবাসী ভোট দিয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে জয়যুক্ত করেছিল।অপরদিকে অ্যাডভোকেট আশরাফ উদ্দিন মন্তু জাতীয় সংসদ সদস্য পদ প্রার্থী হিসেবে সারা উপজেলায় বিলবোর্ড এবং দেয়ালে দেয়ালে চিকা মেরেছে। এ দুজন শীর্ষ যুবলীগ নেতার নিজ ভোট কেন্দ্রে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকে ৩ ভোট পাওয়াকে ঘিরে সরাইল উপজেলার আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক অসন্তোষ বিরাজ করছে।

কর্মী সমর্থকদের প্রশ্ন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক হিসেবে তাদের কি যোগ্যতা রয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে চা দোকানে এ সমালোচনা করছেন সাধারন তৃনমুল কর্মী সমর্থকরা। তারা বলছেন, এমন জনবিচ্ছিন্ন লোকরা কিভাবে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের সহযোগী সংগঠন উপজেলা যুবলীগের শীর্ষ পদে এসেছেন, যাদের নিজ ভোট কেন্দ্রে দলীয় প্রতীকে মাত্র ৩ টি ভোট পেয়েছে।

উপজেলা নিবার্চন অফিস সূত্রে জানা যায়, ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত তৃতীয় ধাপে সরাইল উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে সরাইল সদর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রার্থীর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল জব্বার মোটরসাইকেল প্রতীকে ৯ হাজার ১২৬ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। একই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সেলিম খন্দকার ৫ হাজার ৭১৩ ভোট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন।

নির্বাচন পর্ববর্তী আলোচনায় বিভিন্ন কেন্দ্রে প্রার্থীদের প্রাপ্ত ভোটের কাউন্ট-ডাউনে আলোচনায় স্থান পেয়েছে যুবলীগের নেতাদের কেন্দ্র স্বল্প নোয়াগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামীলীগের দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সেলিম খন্দকার ৩ ভোট পাওয়ার বিষয়টি।

আওয়ামীলীগের অনেক নেতা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ২ হাজার ৪৩৩ জন ভোটারের ওই কেন্দ্রে ১ হাজার ৬০১ জন ভোটার ভোট প্রদান করলেও আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়েছেন কেবল ৩ জন। নৌকা প্রতীকে এক কেন্দ্রে ৩ ভোট পাওয়ার এ বিষয়টি বিভিন্ন মহলে মুখরোচক আলোচনার সৃষ্টি করেছে।

এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট মো.নাজমুল হোসেন বলেন, আসলে এ ব্যাপারটি অত্যন্ত দুঃখজনক। স্বল্প নোয়াগাঁও কেন্দ্রে নৌকা তিনটি ভোট পাবে এটা কোনোভাবেই আমরা মেনে নিতে পারছি না। এরকম ঘটনা যেন আর না ঘটে সেদিকে সজাগ থাকতে হবে।

তিনি বলেন, আরেকটা বিষয় এখানে আসছে। কারণ এটা একটি স্থানীয় নির্বাচন। যার কারণে আঞ্চলিকতার প্রাধান্য বেশি কাজ করছে বলে আমি মনে করি। এজন্য ভবিষ্যতে সবাইকে সতর্ক হয়ে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ