বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩২ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

সরাইলে জামানত হারিয়েছেন ৪১ প্রার্থী

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২১

সরাইলে জামানত হারিয়েছেন ৪১ প্রার্থী।

মোঃ রিমন খান/সরাইল প্রতিনিধিঃ

গত রোববার ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়েছে সরাইলে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। ৯টি ইউনিয়নে ৯টি চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্ধন্ধিতা করেছেন ৬৮ জন প্রার্থী। এরমধ্যে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী ছিলেন ৯জন। জাপা’র প্রার্থী ছিল ৭জন।

নির্বাচনে আ.লীগের ২জন ও জাপা’র ৪ জন সহ মোট ৪১ জন প্রার্থী তাদের জামানত হারিয়েছেন। দেশের বড় দুই দলের প্রার্থীদের জামানত হারানোর বিষয়টিকে ঘিরে সমালোচনার ঝড় বইছে তৃণমূলে। আ.লীগের স্থানীয় দায়িত্বশীল নেতারা দলের সাংগঠনিক দূর্বলতা ও যথাযথ ভাবে প্রার্থী সিলেকশন না হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

নির্বাচন অফিস ও রিটার্নিং কর্মকর্তাদের দফতর সূত্র জানায়, সরাইল উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে এবার রেকর্ড সংখ্যক ৬৮ জন প্রতিদ্বন্ধিতা করেছেন। জয়লাভ করেছেন ৯ জন। পরাজিত হয়েছেন ৫৯ জন।

জামানত হারিয়ে আরেকটি রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন ৪১ জন প্রার্থী। জামানত হারোনোর দলে রয়েছেন আওয়ামী লীগের রোকেয়া বেগম (১১৩৮) ও শফিকুল ইসলাম (২৩০০)। আর জাপা’র মো. মিলাদুল ইসলাম (১৩), মো. উসমান গনি (৩০), মো. আতাউর রহমান (৫৬) ও কাজী ওবাইদুল হক (৮২)।
অন্যরা হলেন- সরাইল সদরে মো. ইউনুছ মিয়া (২০৯)। নোয়াগাঁও ইউনিয়নে আফতাব মিয়া (২৫৫২), আমীর মিয়া (৪৭), মো. মজিদ মিয়া (২১৬৯), মো. ইমরান মিয়া (২৫১৭) ও মো. সাইমুন ইসলাম (১৫৫০)। শাহবাজপুরে ছাদেকুর রহমান (৭৪), মো. ইকরামুল আমিন (৭৮), মীর মুজিব উদ্দিন (২৩) ও রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ (১১১৭)। চুন্টায় মোহাম্মদ মনছর আলী (৩১) ও শামীমা আক্তার (১১৫)।

কালিকচ্ছে ইদ্রীস মোহাম্মদ খাঁন (২৩২), মো. অহিদুজ্জামান লস্কর (১১৬২), মো. আলি জান (৮৬৮), মো. শরীফ চৌধুরী (৩৭৪) ও শেখ মো. আতাউর রহমান (১১২৪)। পানিশ্বর উত্তর ইউনিয়নে কালু মিয়া (১৭৬), মোজাহিদ (৮০), মোবারক হোসেন (১০৫৪), মো. এরশাদ (২৬৩), মো. এসকান্দর মিয়া (১৬), মো. জসিম উদ্দীন (৪৮৮) ও মো. মোবারক আলী (৫৯)। অরূয়াইলে বাহার উদ্দিন (১২১)।

পাকশিমুলে আবদুল্লাহ সরকার (১৮৪০), ইমরান হোসেন (১১০), কুতুবুল আলম (৯৫৬), জিয়াউর রহমান (১১৭), মো. আবদুল্লাহ (১৪), মো. আবদুল্লাহ ভূইয়া (০৮), মো. আবুল কাশেম (৭৩০), মো. আলফু মিয়া (১৬১৫) ও মো. মিন্নত আলী (৩৬৬)। শাহজাদাপুরে মো. আঙ্গুর মিয়া (১৬৫৩)। উপরোল্লেখিত কোন প্রার্থীই স্বস্ব ইউনিয়নে কাষ্টিং ভোগের ৮ ভাগের ১ ভাগ ভোট পাননি।

রিটার্নিং কর্মকর্তা সহিদ খালিদ জামিল খান বলেন, বিধান হচ্ছে যদি কোন প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী কাষ্টিং ভোটের ৮ ভাগের ১ ভাগ ভোট না পান তবে তিনি জামানত হারাবেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ