বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০২:১৯ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

পুঁজিবাজার নিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নেতিবাচক কার্যক্রম বন্ধের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ রবিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২১

পুঁজিবাজার নিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নেতিবাচক কার্যক্রম বন্ধের দাবি

পুঁজিবাজার নিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নেতিবাচক কার্যক্রম বন্ধের আহবান জানিয়েছে বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদ। সংগঠনের পক্ষ থেকে আজ ২৮ নভেম্বর একটি চিঠি বাংলাদেশ ব্যাংকে হস্তান্তর করা হয়। নিম্নে চিঠির হুবহু তুলে ধরা হলো-

“২০১০ সালে পুঁজিবাজারে মহাধ্বসের ফলে বহু বিনিয়োগকারী নিঃস্ব হয়েছে। পুঁজি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে ৩৪ জন বিনিয়োগকারী আত্মহুতি দিয়েছিল। এই মহাধ্বসের অন্যতম একটি কারণ ছিল- তৎকালীন বাংলাদেশে ব্যাংকের হঠকারী সিদ্ধান্ত যেমন- ২০০৯-২০১০ সালে পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগকৃত ক্যাশফ্লো কমিয়ে আনা, যা বিশ্বে নজিরবিহীন। পুঁজিবাজার পতনের বদনাম পড়েছিল সরকারের উপর। দীর্ঘদিনের মন্দাভাব কাটিয়ে পুঁজিবাজার ধীরে ধীরে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে শুরু করেছে। বর্তমান কমিশনের সুযোগ্য নেতৃত্ব, সকল অংশীজনের সহযোগিতার ফলে পুঁজিবাজারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আস্থা তৈরী হয়েছে। দেশী ও বিদেশী বিনিয়োগ পুঁজিবাজারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থ বিনিয়োগকারীরা তাদের হারানো পুঁজি ফিরে পেতে শুরু করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুঁজিবাজারের উন্নয়নের জন্য ৬টি দিক-নির্দেশনা দিয়েছেন। পুঁজিবাজারে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ইতোপূর্বে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের নেতৃত্বে আমেরিকা ও ইংল্যান্ডসহ বিশ্বের ৪টি দেশে রোড শো অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে উপযুক্ত পরিবেশ থাকার কথা উল্লেখ করে রোড শো’তে বিদেশী বিনিয়োগকারীদেরকে বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য আহ্বান জানিয়েছেন বিএসইসি-এর চেয়ারম্যান শিবলী রোবায়েতুল ইসলাম। পুঁজিবাজার উন্নয়নে বাংলাদেশ ব্যাংক সব সময়ই কমিশনকে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদান করেছে বলে আমরা মনে করছি। কিন্তু বাংলাদেশ ব্যাংকের কিছু কিছু দুর্বল মনিটরিং পলিসি ও পুঁজিবাজারের প্রতি অযাচিত হস্তক্ষেপ বর্তমানে পুঁজিবাজারকে পতনের ধারায় ত্বরান্বিত করছে। যেমন- ব্যাংক ও আর্থিক খাতের অবন্টিত লভ্যাংশের টাকা মার্কেট স্টাবিলাইজেশন ফান্ডে জমা দিতে বাধা সৃষ্টি করা, বিএসইসিকে না জানিয়ে সংশ্লিষ্ট যে কোন প্রতিষ্ঠানের কাছে সরাসরি কোন তথ্য বা উপাত্ত চাওয়া, পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ নিয়ে একের পর এক সমালোচিত সিদ্ধান্ত গ্রহন করা।

আমরা লক্ষ্য করছি যে, পুঁজিবাজার যখনই একটু গতিশীলতা পায় তখনই বাংলাদেশ ব্যাংকের দুর্বল মনিটরিং পলিসি ও নতজানু সিদ্ধান্তের কারনে বাজারের গতিশীলতা হ্রাস পায়। এতে সাধারন বিনিয়োগকারীরা চরম ক্ষতির সম্মূখীন হচ্ছে।

তাই পুঁজিবাজারের উন্নয়ন ও গতিশীলতার স্বার্থে বাংলাদেশ ব্যাংক পুঁজিবাজার বিষয়ক যে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহন, তথ্য

ও উপাত্ত চাওয়া এবং ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ, লভ্যাংশ প্রদান ইত্যাদি বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহনের পূর্বে, পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রন সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন বা সংশ্লিষ্টদের সাথে পরামর্শ করে নেওয়ার জোড় দাবি জানাচ্ছি। এতে পুঁজিবাজার আরো স্থিতিশীল হবে এবং সরকারের ভাবমূর্তি ও উজ্জ্বল হবে।”


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ