মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

বালিয়াকান্দিতে নৌকার প্রার্থীর অফিসে অগ্নিসংযোগ

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ শনিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২১

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. রেজাউল করিমের অফিসে আগুন দিয়েছেন দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনার জন্য স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. খলিলুর রহমান ও তার সমর্থকদের দায়ী করেছেন তিনি। এর আগে মো. খলিলুর রহমানের বিরুদ্ধে প্রচার-প্রচারণায় বাধা ও নৌকার সমর্থিত নেতাকর্মীদের প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ করে উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন রেজাউল করিম।

শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) দিবাগত রাত ২টার দিকে বহরপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের বালুচর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে করে নৌকার পোস্টার সহ বেশ কিছু আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ ঘটনায় থানা ও উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করবেন বলে বার্তা২৪.কমকে নিশ্চিত করেছেন মো. রেজাউল করিম।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাত ১২ টার সময় প্রচার প্রচারণার শেষ দিনে তারা অফিস ঠিকমতো রেখে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা অফিসের আগুন দেখতে পায়। এ ঘটনায় অন্য কোন কিছু ক্ষতি হয়নি বলে জানায় স্থানীয়রা।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. রেজাউল করিম অভিযোগ করে বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থী মো. খলিলুর রহমান ও তার সমর্থকেরা আমার অফিসে অগ্নিসংযোগ করে ভয়ভীতি প্রদর্শন করছেন। আমার ভোটারদের তিনি নানা ভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে যাচ্ছেন। আমি প্রাথমিকভাবে জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ ও নির্বাচন অফিসকে অবহিত করেছি। আমি লিখিতভাবে অভিযোগ করবো।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. খলিলুর রহমান বলেন, আমার সমর্থকেরা অত্যন্ত শান্তিপ্রীয় মানুষ। তারা এই ঘটনার সাথে জড়িত না।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (পাংশা সার্কেল) সুমন কুমার সাহা বলেন, ঘটনাটি এই মাত্রই শুনলাম। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোন রকম সহিংসতা সহ্য করা হবেনা। এ বিষয়ে আমরা কঠোর অবস্থানে রয়েছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ