শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০১:১৩ অপরাহ্ন
জরুরী ঘোষণাঃ
দেশের কয়েকটি জেলা, উপজেলা, থানা ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগঃ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হটলাইন। বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। যোগাযোগঃ +৮৮ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হোয়াটসআপ। আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যে কোনো ব্যতিক্রম খবর পাঠিয়ে দিতে পারেন। ছবি ও ভিডিও থাকলে আরো ভাল। পাঠিয়ে দিন আমাদের এই ঠিকানায়: protibedonbd@gmail.com • আপনি কি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতায় পড়শুনা করছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে ‘ইন্টার্নশিপ’ এর সুযোগ। আজই যোগাযোগ করুন। করোনা থেকে বাঁচতে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।

আত্মবিশ্বাসী নারী আফরিন মুন্না; এগিয়ে সৌহার্দ্যের বন্ধনে

/ ২৫ /২০২১
প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২১

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার ।।    

প্রাচীনকাল থেকেই সভ্যতা বিকাশে নারীর ভূমিকা অপরিসীম। আজ কোন কাজে নারীরা পিছিয়ে নেই। এখন সংকীর্ণ নয়; নারীর চলার ও বলার পথ। নারীর অগ্রযাত্রার পথ এখন সু-প্রশস্ত।
গলি-ঘুপচি, অন্দরমহল ডিঙ্গিয়ে বিশ্বায়নের এই সময়ে নারী মহাসড়কের পথিক। নারী আর অন্ধকারে নয়, এখন নারীর হাত ধরেই প্রস্ফুটিত হচ্ছে আলোক রশ্মি। আর আমরা শিক্ষা-দীক্ষায় ও আর্থসামাজিক ভাবে বেশ উন্নত হয়েছি। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উৎকর্ষে যাপিত জীবনে অনেক ধাপ এগিয়েছি। তাই আজ আমরা সভ্য হয়েছি, বুক চিতিয়ে দাবী করেছি শ্রেষ্ঠত্বের। কিন্তু মন ও চিন্তা ভাবনায় কতটুকু উন্নত হতে পেরেছি ?
সংকীর্ণ মনের কিছু মানুষেরা এখনো নারীকে অবহেলা করে আর প্রতিনিয়ত অবলা ভাবেন। যেমনটি চকরিয়া পূর্ব বড় ভেওলা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত, শেখ হাসিনার মনোনীত নৌকার প্রার্থী শহীদ নাছির উদ্দিন নোবেলের সহধর্মিণী ফারহানা আফরিন মুন্নাকে নিয়ে অনেকে তাচ্ছিল্যের সাথে অনেকে, অনেকে কিছু বলেছেন এবং অবিরত বলেই যাচ্ছেন।
কিন্তু আজ একজন অবলা নারী, অকালে স্বামী হারা ফারহানা আফরিন মুন্না পূর্ব ভেওলার মানুষকে প্রমাণ করেছেন ভালোবাসা, হৃদ্যতা, সৌহার্দ্যতা এবং ঐক্য কারে বলে!
এই শহীদ জয়া ফারহানা আফরিন মুন্না শোককে পাথর চাপা দিয়ে আগামীর তরে এগিয়ে যাচ্ছে। ছন্নছাড়া দ্বিকবিদিক ছুটে চলা পূর্ব বড়ভেওলার একটি জনগোষ্ঠীকে একই কাতারে নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে মুন্না।
সবাইও তার ঐক্যের ডাকে সাড়া দিয়ে অতীতের মান-অভিমান ও ভেদাভেদ ভুলে একই মঞ্চে, একই ছায়াতলে চলে এসেছেন।

পূর্ব বড়ভেওলার মতো অজপাড়াগাঁ গ্রামে বেড়ে উঠা একজন নারী তার মরহুম স্বামী শহীদ নাছির উদ্দিন নোবেলের স্বপ্ন পূরণে, নোবেলকে নিয়ে পূর্ব বড়ভেওলা বাসীর স্বপ্ন স্বার্থক করার মহান লক্ষ্যে, একবুক আশা নিয়ে অন্দর মহলের ঘুপচি থেকে বেরিয়ে এসেছেন জনতার কাতারে।
নাছির উদ্দিন নোবেল তৃণমূল থেকে উঠে আসা ত্যাগী কর্মী। মাটি কামড়ে রাজনীতির সাথে আঁটসাঁট বেঁধে লেগে ছিলেন সেই ছাত্রবেলা থেকে। আমৃত্যু জাতির জনকের আর্দশকে বুকে লালন করে গেছেন।
আফরিন মুন্না এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে আগামীর স্বপ্ন পূরণের জন্য অবিরাম লড়ে যাচ্ছেন। এই সাহসী নারী আফরিন মুন্না গ্রামের ধূসর মেঠোপথ পাড়ি দিয়ে ইতোমধ্যে উপজেলা থেকে জেলা, জেলা হয়ে কেন্দ্র পর্যন্ত পৌঁছে দেশের সর্ব বৃহৎ রাজনৈতিক দলে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন, নৌকা প্রতীক নিয়ে এসে প্রমান করে দিলেন, চাইলে নারীও চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে পারে! নারী আর অবলা নয়। অবশ্যই আফরিন মুন্না তার অদম্য ইচ্ছাশক্তি ও অসীম সাহসের জোরে এমনটি সম্ভব হয়েছে।

আজ এই শহীদ জয়া আফরিন মুন্নার হাত ধরে পূর্ব বড় ভেওলার জনপদের পরতে পরতে বঙ্গবন্ধুর নৌকার জয়ধ্বনীতে চলছে উৎসব। আর নৌকার জয়ধ্বনি উৎসবে মুখরিত মাঠ ময়দান। আফরিন মুন্না পূর্ব বড়ভেওলার অবহেলিত জনগোষ্ঠীকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছেন। উন্নয়নের আলো দেখাচ্ছেন। আগামীতে সমৃদ্ধির পূর্ব ভেওলার স্বপ্ন দেখাচ্ছেন। তার হাত ধরে ২৮ নভেম্বর নতুন দিগন্তের সূচনা হতে যাচ্ছে। ফারহানা আফরিন মুন্না নতুন আলোর পথের পথিক।
আফরিন মুন্না নির্ভিক, আফরিন মুন্না দূর্বার, আফরিন মুন্না চঞ্চল। নৌকা প্রতীকে বিজয়ী হয়ে প্রজন্মের কাছে আফরিন মুন্না তুলে দিতে চান সম্ভবনার আলো।
আসলে প্রবল ইচ্ছে শক্তি একজন নারীকে সাহসী করে তুলেন। আজ এমন কোন কাজ নেই যেখানে নারীর সম্পৃক্ততা নেই। সকল যাত্রায় নারীর পদধূলি অঙ্কিত করছে। চুলোতে আগুন ধরানো থেকে দেশ পরিচালনা পর্যন্ত। কৃষাণীর কাজেও নারী। শিল্পের মজদুর থেকে মালিকও নারী। দেশ পরিচালনা থেকে সমালোচকও এখন নারী। বিশ্ব নেতৃত্বের আসনেও নারীর উপস্থিতি মোটেও কম নয়।
এই একবিংশ শতাব্দীর এমন একটি ক্ষেত্র নেই যেখানে নারীর হস্তছাপ নেই, চিন্তিত চেতনে মননে।
জয় হোক আফরিন মুন্নার। জয় হোক স্বাধীনতার প্রতীক নৌকার, জয় হোক উন্নয়নের প্রতীক নৌকার। জয় বাংলা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Categories