শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১২:৫৬ অপরাহ্ন
জরুরী ঘোষণাঃ
দেশের কয়েকটি জেলা, উপজেলা, থানা ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগঃ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হটলাইন। বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। যোগাযোগঃ +৮৮ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হোয়াটসআপ। আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যে কোনো ব্যতিক্রম খবর পাঠিয়ে দিতে পারেন। ছবি ও ভিডিও থাকলে আরো ভাল। পাঠিয়ে দিন আমাদের এই ঠিকানায়: protibedonbd@gmail.com • আপনি কি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতায় পড়শুনা করছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে ‘ইন্টার্নশিপ’ এর সুযোগ। আজই যোগাযোগ করুন। করোনা থেকে বাঁচতে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।

সরাইলে ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে, প্রতিটি চা দোকানে চলছে ভোটারদের তর্কবির্তক

/ ২৩ /২০২১
প্রকাশকালঃ বুধবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২১

সরাইলে ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে, প্রতিটি চা দোকানে চলছে ভোটারদের তর্কবির্তক।

মোঃ রিমন খান/সরাইলপ্রতিনিধিঃ

তৃতীয় ধাপে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন, নির্বাচন কে সামনে রেখে ভোটারদের মধ্যে জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। নিজ নিজ এলাকার প্রার্থী নিয়ে ভোটারদের রয়েছে আলাদা হিসাব-নিকাশ। আর এসব আলোচনার ঝড় উঠছে এখন চায়ের দোকানে তর্কবির্তক।

সরেজমিনে বুধবার (২৪ নভেম্বর ) দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়ন কুট্টাপাড়া এলাকায় একটি চায়ের দোকানে দেখা যায় ভোটাররা নির্বাচনী আলাপে মশগুল। একজন ভোটার এলাকার এক প্রার্থীর নৌকা পক্ষে কথা বললেন,তো আরেক ভোটার একই আসনের আরেক প্রার্থীর চশমা পক্ষে প্রশংসা করে তাকেই এগিয়ে রাখলেন। এ নিয়ে খানিকটা তর্কও হলো দুই ভোটারের মধ্যে। নৌকা প্রার্থী প্রভাব খাটাচ্ছে বেশি।

সরাইল উপজেলায় একই চিত্র। শুধু ভোটের আলাপ। সন্ধ্যা হলো হালকা শীতের আমেজে চায়ের চুমুকে চুমুকে চলছে ভোটের আলাপ। সেই আলাপের কোনো শেষ নেই। ভোর থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত সেই ভোটের আলাপ।

সরাইল উপজেলার বিভিন্ন চায়ের দোকানে শ্রমজীবী মানুষের মধ্যেই ভোটের আলাপে আগ্রহ বেশি দেখা যায়। তবে মধ্যবিত্ত শ্রেণীর অনেকেই তার রাজনৈতিক অবস্থান কৌশলগত কারণে প্রকাশ করেন না। সে কারণে ভোটের আলাপ থেকে দূরে থাকারও চেষ্টা করেন কেউ কেউ। তবে ভোটের দিন এখন যতই এগিয়ে আসছে, ততই বাড়ছে ভোটের আলাপ।

আবার কোথাও কোথাও ভিন্ন চিত্রও রয়েছে। ভোটের আলাপ নিয়ে তর্ক-বিতর্ক ঠেকাতে কোনো কোনো চায়ের দোকানের মালিক বলছেন ভোটের আলাপ যেন না করে। চা দোকানি হুমায়ূন কে জিজ্ঞাসা করতেই তিনি জানালেন, ভোটের আলাপ নিয়ে তর্ক-বিতর্কের এক পর্যায়ে দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি সম্ভবনা হয়ে তাকে। তাই বাধ্য হয়েই তিনি এ কথা বলেন।

উল্লেখ্য, আগামী ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে সরাইল উপজেলায় ৯ টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Categories