শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০২:১৮ অপরাহ্ন
জরুরী ঘোষণাঃ
দেশের কয়েকটি জেলা, উপজেলা, থানা ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগঃ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হটলাইন। বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। যোগাযোগঃ +৮৮ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হোয়াটসআপ। আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যে কোনো ব্যতিক্রম খবর পাঠিয়ে দিতে পারেন। ছবি ও ভিডিও থাকলে আরো ভাল। পাঠিয়ে দিন আমাদের এই ঠিকানায়: protibedonbd@gmail.com • আপনি কি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতায় পড়শুনা করছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে ‘ইন্টার্নশিপ’ এর সুযোগ। আজই যোগাযোগ করুন। করোনা থেকে বাঁচতে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।

বিপিএলের অভিজ্ঞতাই পাকিস্তান মোকাবেলায় টাইগারদের আত্মবিশ্বাস

/ ৩১ /২০২১
প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২১

বিপিএলে খেলে শোয়েব মালিক-শাদাব খানরা বাংলাদেশের কন্ডিশন নিয়ে অভিজ্ঞতার ভান্ডারটা বেশ সমৃদ্ধ করেছেন। সেই অভিজ্ঞতাই এখন পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা কাজে লাগাবে বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে।

পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা বিপিএলে খেলায় সুবিধে হচ্ছে টাইগার ক্রিকেটারদেরও। মালিক-শাদাবদের বিপক্ষে বিপিএলে খেলার অভিজ্ঞতা মাঠের লড়াইয়ে বেশ কাজে দিবে লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের।

বিপিএল থেকে কুড়ানো আত্মবিশ্বাসটা টি-টোয়েন্টি সিরিজে কাজে লাগানোর প্রতিশ্রুতি দিলেন দেশের টপ-অর্ডার ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় শান্ত বলেন, ‘বিশ্ব ক্রিকেট চিন্তা করলে পাকিস্তান সেরা দলগুলোর একটি। বিপিএলে ওদের বেশ কয়েকজনের সঙ্গে খেলার সুযোগ হয়েছে। ওই দিক থেকে আমরা একটু আত্মবিশ্বাসী যে ওই বোলারদের মোকাবেলা করেছি, বা ওই ব্যাটসম্যানের বিপক্ষে বল করেছি। এই সুযোগ আছে। বিশ্ব ক্রিকেটে প্রত্যেকটা দলই ভালো। চিন্তা করলে হবে না যে অনেক ভালো কিছু করব, আমরা জাস্ট বল দেখব, খেলব। অত বেশি চিন্তার কিছু নেই। আমরা যেটা পারি ওই জিনিসটা করব।’

সিনিয়র-জুনিয়র সবাইকে দায়িত্ব নিয়ে খেলার আহ্বান জানিয়েছেন শান্ত, ‘আমরা এখানে যারা আছি প্রত্যেকেই সামর্থ্যবান। প্রত্যেকটা ব্যাটসম্যানই দায়িত্ব নিয়ে খেলার মতো। আমাদেরই দায়িত্ব নিতে হবে। এখানে সিনিয়র বা জুনিয়র বলে কিছু নাই। এখানে সবাই সামর্থ্যবান বলে আমরা আছি। প্রত্যেকেরই দায়িত্ব আছে। যার যে দায়িত্ব সবারই ওটা সমানভাবে পালন করতে হবে। সবারই সেই সামর্থ্য আছে।’

অনেক দিন পর টি-টোয়েন্টি দলে ফেরা শান্ত শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলার লক্ষ্যের কথা জানান, ‘টি-টোয়েন্টি অবশ্যই রানেরই খেলা। আমি যখনই খেলি আমার লক্ষ্য থাকে আক্রমণাত্মক ক্রিকেটই খেলা। চিন্তা থাকে প্রথম বল থেকেই আগ্রাসী মেজাজে থাকব। তার মানে এই না যে প্রতি বলেই মারতে থাকব। অবশ্যই বল বিচার করে খেলব।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Categories