বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০১:৫৪ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

সুদানে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে ফের গুলি, নিহত ১০

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ বুধবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২১

সুদানের রাজধানী খার্তুমে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে ফের গুলি চালিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। এতে অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছেন। সেনাবাহিনীর গুলিতে আহত হয়েছেন আরও বহু বিক্ষোভকারী। খবর আল-জাজিরার।

স্থানীয় সময় বুধবার (১৭ নভেম্বর) দেশটির রাজধানী খার্তুম ও এর পার্শ্ববর্তী শহর ওরদুরমান এবং বাহরিতে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

দেশটির চিকিৎসকদের স্বাধীন সংগঠন ‘সুদানিজ ডক্টরস-সিসিএসডি’ এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। সংগঠনের তথ্যমতে, বুধবার খার্তুমে দুজন, ওরদুরমানে সাতজন এবং বাহরিতে একজন বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন।

সিসিএসডি বরাতে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার ভোর থেকে রাজধানী খার্তুম ও আশপাশের সব শহরের মোবাইল সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় সেনাসমর্থিত সরকার। তবে সকাল থেকেই খার্তুম, বাহরি ও ওরদুরমানের রাস্তায় নেমে আসে কয়েক হাজার মানুষ।

বিক্ষোভকারীরা অভ্যুত্থানের প্রতিবাদ জানিয়ে স্লোগান দিতে শুরু করে। তারা দ্রুত সেনা শাসনের অবসান ঘটিয়ে রাজনৈতিক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের দাবি জানাতে থাকে। এসময় তিনটি শহরে একযোগে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে নিরাপত্তা বাহিনী।

এতে ঘটনাস্থলেই অন্তত ১০ জন মারা যান। গুলিবিদ্ধ হয় অসংখ্য বিক্ষোভকারী। তাদেরকে উদ্ধার করে স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে সিসিএসডি।

 

গত ২৫ অক্টোবর দেশটির শীর্ষ রাজনৈতিক নেতাদের বন্দি করে ক্ষমতা দখল করেন জেনারেল ফাত্তাহ আল-বুরহান। প্রধানমন্ত্রী আব্দাল্লাহ হামদককে গৃহবন্দি ও বেশ কয়েকজন মন্ত্রীকে গ্রেফতারের পাশাপাশি দেশব্যাপী জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন তিনি।

ঘটনার পরপরই সামরিক অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে রাস্তায় নামেন সুদানের হাজার হাজার মানুষ। অরাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে দেশটির সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে নিন্দার ঝড় ওঠে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও। সুদানে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠায় সরব হয় ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ ও সংস্থা।

সুদানে তিন দশক ধরে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতায় ছিলেন ওমর আল-বশির। ২০১৯ সালে ওমর আল-বশিরের সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে দেশটির সেনাবাহিনী। এরপর ক্ষমতা ভাগাভাগি করে দেশ পরিচালনা করছিল সামরিক বাহিনী ও বেসামরিক সরকার।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ