সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ১১:৫৮ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

ইংল্যান্ডের ‘পাওয়ার প্যাক’ নিয়ে শঙ্কায় উইলিয়ামসন

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ মঙ্গলবার, ৯ নভেম্বর, ২০২১

টি-২০ ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের গভীরতার প্রশংসা করে নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন বলেছেন, গুরুত্বপুর্ন খেলোয়াড়দের ইনজুরি সত্বেও বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালের প্রতিপক্ষ হিসেবে তারা খুবই শক্তিশালী।

সুপার টুয়েলভ পর্বে দুই দলই ৫ ম্যাচের মধ্যে চারটি করে ম্যাচে জয়লাভ করেছে। এখন তারা পরস্পরের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ফাইনালের টিকিট লাভের লক্ষ্য নিয়ে। আসন্ন ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামার আগে দুই দলেরই সামনে চলে আসছে ২০১৯ সালের ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ ফাইনালের স্মৃতি। যেখানে ইংল্যান্ড শিরোপা জয় করেছে।

এই বছর বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা জয়ের পর থেকে তিন ফর্মেটেই ধারাবাহিক পারফর্ম করে আসছে নিউজিল্যান্ড। অপরদিকে ফাস্ট বোলার টাইমাল মিলস ও জেসন রয়ের ইনজুরি ইয়োইন মরগানের দলের কম্বিনেশনকে নড়বড়ে করে দিতে পারে।

উইলিয়ামসন মঙ্গলবার সাংবাদিকেদর বলেন, ‘এটি ঠিক যে টুর্নামেন্টে তাদেরকে ইনজুরির সাথে পাল্লা দিতে হচ্ছে। তবে আমার মনে হয় ইংল্যান্ড দলের যে গভীরতা, তাতে এক পর্যায়ে বিষয়টিকে তারা সামাল দিতে পারবে। এখনো তারা বেশ শক্তিশালী দল। যারা সত্যি ভাল ক্রিকেট খেলছে।’

কিউই অধিনায়ক বলেন, ‘দেখুন তাদের দলে বেশ কিছু ম্যাচ জয়ী খেলোয়াড় রয়েছে। যা বিশাল ব্যাপার। আমার অনুমান, পাওয়ার প্যাক দলটির ব্যাটিং দৃঢ়তাও বেশ গভীর।’

নিউজিল্যান্ডের মুল শক্তি তাদের দুই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট ও টিম সাউদি। গ্রুপ পর্বে ম্যাচের শুরুতে তারা এর প্রমান দিয়েছেন। নিয়ন্ত্রিত বোলিং দিয়ে বোল্ট ও সাউদি ১৮টি উইকেট ভাগাভাগি করে নিয়েছে। যার ফলে ব্যাটিংয়ের উপর খুব একটা চাপ পড়েনি।

এই পেস জুটি প্রসঙ্গে উইলিয়ামসন বলেন,‘তারা অসাধারন। দলের হয়ে দীর্ঘদিন ধরে সব ফর্মেটে খেলে আসছেন তারা। আমাদের জন্য তারা সত্যিই অভিজ্ঞ অপারেটর। তারা আমাদের জন্য অসাধারণ কাজ করে যাচ্ছেন। আমাদের বোলিং আক্রমনের নেতৃত্ব দিচ্ছেন, ভিন্ন পরিবেশে নিজেদের মানিয়ে নিচ্ছেন। তারা আমাদের দলের সত্যিকারের মুল শক্তি।’

২০১৯ সালের ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ ফাইনালের প্রসঙ্গে মুচকি হেসে উইলিয়ামসন বলেন, নিউজিল্যান্ড ম্যাচটিকে সুপার ওভারে নিয়ে গেলেও বাউন্ডারী গননায় হেরে গেছে। কিউই অধিনায়ক বলেন, দল অনেকটাই এগিয়েছে এবং সামনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য অপেক্ষা করছে। তিনি বলেন, ‘ওই ঘটনা ছিল খেলারই একটি অংশ। সেটি ছিল অসাধারণ একটি ম্যাচ। এখনো যখন ছেলেরা খোশ গল্পে মেতে উঠে তখন সেই প্রসঙ্গও সেই অভিজ্ঞতার গল্পটি চলে আসে।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে আসরের সর্বশেষ ম্যাচে দলের হয়ে সর্বোচ্চ অপরাজিত ৪০ রান করা উইলিয়ামসন বলেন, তার কনুই এখনো শতভাগ ঠিক হয়নি। তিনি বলেন,‘ এটি ব্যক্তিগত ভাবে আমার জন্য কিছুটা চ্যালেঞ্জের। একদিকে আমাকে যেমন কনুই বাঁচিয়ে খেলতে হবে , তেমনি যতটুকু সম্ভব ম্যাচকে এগিয়ে নিতে হবে। তবে এসব বিষয় নিয়ে আমি খুব বেশী চিন্তিত নই। দেখা যাক নির্ধারিত দিনে কি হয়, সেই দিকেই এখন তাকিয়ে আছি।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ