বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ১২:৪৯ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

তরুণ বয়সেই সফল উদ্যোক্তা মোঃ রিন্টু

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ শুক্রবার, ২২ অক্টোবর, ২০২১

তরুণ বয়সেই সফল উদ্যোক্তা মোঃ রিন্টু

তরুণ বয়সেই সফল উদ্যোক্তা মোঃ রিন্টু। সম্প্রতি তৃতীয় প্রজন্মের ব্যবসায়ী হিসেবে লেদার সেক্টরের পাশাপাশি ই-কমার্স খাতে বিনিয়োগ করতে যাচ্ছেন তিনি।

পুরনো ঢাকার এক সম্ভ্রান্ত পরিবারের জন্মগ্রহণ করেন মোঃ রিন্টু্। পারিবারিকভাবে লেদার ও ট্যানারী ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। ইকরা লেদারের হাউজ এর পরিচালক তিনি। নিজের পারিবারিক ব্যবসার বাইরে এসে সেবার মানসিকতা নিয়ে করোনা রোগীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। রোগীর বাসায় পৌঁছে দিয়েছেন করোনা চিকিৎসা সামগ্রী। করোনা আক্রান্তদের অন্তত ৫ শতাংশ রোগীর অক্সিজেন সাপোর্ট প্রয়োজন হয়। তাদের হাসপাতালে ভর্তি না হলেও চলে। এসব রোগীদের স্বল্পমূল্যে অক্সিজেন সিলিন্ডার, অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর, পেশেন্ট মনিটর, এবং অ্যাম্বু ব্যাগ পৌঁছে দিয়েছেন সুপারমার্টবিডির মাধ্যমে। এছাড়া ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী যেসব ওষুধ প্রয়োজন সেগুলোও বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছেন। দক্ষ-প্রশিক্ষিত টিম করোনা মহামারীর মধ্যে ২৪ ঘন্টাই কাজ করেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় এবার পূর্ণাঙ্গ ই-কমার্স সাইট নিয়ে আসছেন তিনি।

এ বিষয়ে মোঃ রিন্টু বলেন, ই-কমার্স হিসেবে সুপারমার্টবিডি যখন কাজ করে শুরু করে তখনই আমরা বিভিন্ন প্রবলেম এর মাঝে পড়ে যাই। আমরা লস করি। তখনই চিন্তা করি নতুন করে শুরু করবো। আমরা বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে ই-কমার্স খাত নিয়ে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখতে পাই। কিন্তু তারপরও সুপারমার্টবিডি কখনো হাল ছাড়েনি। আমরা ক্যাশ অন ডেলিভারিতে কাজ করবো। ক্যাশ অন ডেলিভারি আপনাদের প্রোডাক্ট পাবেন।

তিনি বলেন, সুপারমার্টবিডি নামে ২০১৮ সাল থেকে আমাদের হসপিটালে ইকুইপমেন্টের বিজনেস ছিল। এর মধ্যে আমরা চিন্তা করলাম যেহেতু হসপিটাল ইকুইপমেন্টস অনলাইনে দিব। এর মধ্যে করোনা চলে আসলো। তখন স্বল্প আয়ে আমরা করোনা রোগীদের ইকুইপমেন্ট দিতে শুরু করলাম। সারা পৃথিবীর মানুষ আক্রান্ত হয়ে পরল। যথেষ্ঠ পরিমাণে অক্সিজেন আমরা বাসায় বাসায় ডেলিভারি দিয়েছি। মহামারীর সময়েও আমাদের ডেলিভারি সিস্টেমটা ভালো ছিল। এবারও ভাল সার্ভিস পাবেন।

সুপারমার্টবিডি সম্পর্কে তিনি বলেন, এরই মধ্যে আমরা চিন্তা করেছে যে সুপারমার্টবিডি এখন নতুনভাবে আপনাদের কাছে যাবে। এবং পণ্যের মান বজায় থাকবে। সেটাই আমাদের অঙ্গীকার। সুপারমার্টবিডি আপনাদের পাশে থাকবে সব সময় ইনশাআল্লাহ। এবং আপনারা আমাদের পাশে থাকবেন। সেটাই আমরা সবসময় আশা করবো। যখন সুপারমার্টবিডি শুরু হবে, তখন আপনারা আমাদের এপস ডাউনলোড করবেন। এই প্রত্যাশা রইল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ