শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৫৫ অপরাহ্ন
জরুরী ঘোষণাঃ
দেশের কয়েকটি জেলা, উপজেলা, থানা ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগঃ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হটলাইন। বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। যোগাযোগঃ +৮৮ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হোয়াটসআপ। আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যে কোনো ব্যতিক্রম খবর পাঠিয়ে দিতে পারেন। ছবি ও ভিডিও থাকলে আরো ভাল। পাঠিয়ে দিন আমাদের এই ঠিকানায়: protibedonbd@gmail.com • আপনি কি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতায় পড়শুনা করছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে ‘ইন্টার্নশিপ’ এর সুযোগ। আজই যোগাযোগ করুন। করোনা থেকে বাঁচতে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।

সাতক্ষীরায় আলোচিত ফোর মার্ডার মামলার একমাত্র আসামি রায়হান এর ফাঁসির আদেশ

/ ১৫ /২০২১
প্রকাশকালঃ মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সাতক্ষীরায় আলোচিত ফোর মার্ডার মামলার একমাত্র আসামি রায়হান এর ফাঁসির
আদেশ।

সাতক্ষীরা থেকে আব্দুর রহিম:

সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়ায় আলোচিত ২ শিশুসহ ৪ জন কে খুনের ঘটনায় মামলার একমাত্র আসামি রায়হানুর রহমান ওরফে রায়হান কে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আদেশ দিয়েছেন আদালত।১৪ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১২ টার দিকে সাতক্ষীরা সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ মি: মফিজুর রহমান এক জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।
২০ কার্যদিবসের মধ্যে এই আলোচিত মামলার রায় ঘোষণা করা হলো।
জেলা জজ কোটের পিপি অ্যাডভোকেট আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০২০ সালের ১৪ ই অক্টোবর মধ্যরাতে রায়হানুর রহমান তার ভাই শাহিনুর, ভাবি সাবিনা এবং তাদের ছেলে সিয়াম হোসেন মাহী (১০) এবং মেয়ে তাসনিম সুলতানা (৮) কে প্রথমে কোমলপানীয় এর সাথে ঘুমের ঔষধ মিশিয়ে খাওয়ান এবং পরে ১৫ ই অক্টোবর ভোর ৪ টার দিকে তাদের চারজনকে হাত-পা বেঁধে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে।
ওই দম্পতির পরিবারের ৪ মাসের শিশু মারিয়া কে হত্যা না করে লাশের পাশে ফেলে রেখে যায়।

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি সদস্যরা সন্দেহতীত ভাবে রায়হানুর এবং একই গ্রামের আব্দুল মালেক, আব্দুর রাজ্জাক এবং ধানঘোরা গ্রামের আসাদুল সর্দার কে গ্রেপ্তার করেন।

ওই মামলায় আদালতে রায়হানুর একাই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।
২০২০ সালের ২৪ নভেম্বর রায়হানকে একমাত্র আসামি দেখিয়ে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। বিচারক এই মামলার মোট ১৪ জন সাক্ষী এবং ১ জন সাফাই সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Categories