বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ১০:১৮ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

শ্রমজীবী মানুষের সাথে খেয়ালিপনা বন্ধ করুন : কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ রবিবার, ১ আগস্ট, ২০২১

শ্রমজীবী মানুষের সাথে খেয়ালিপনা বন্ধ করুন : কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন।

নিজস্ব প্রতিনিধি:

গণপরিবহন বন্ধ রেখে শিল্প কলকারখানা খোলার ঘোষনা ইতিহাসের সেরা পরিহাস বলে মন্তব্য করে জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন আহ্বায়ক এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা ও সমন্বয়ক কৃষক মো. মহসীন ভুইয়া বলেন, ‘খাবারের খোঁজে’ শ্রমজীবী মানুষের সাথে খেয়ালিপনা বন্ধ করুন। খাম খেয়ালিপনা বন্ধ করে হয় সব কিছু খুলে দেন আর না হয় সব কিছু বন্ধ করুন। হাত পা বেঁধে নদীতে ফেলে দিলে মানুষের যা হয়, শিল্প প্রতিষ্ঠানের শ্রমিকদের একই অবস্থা। শ্রমিকের সাথে তামশা বন্ধ করুন।

রবিবার (১ আগস্ট) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তারা এসব কথা বলেন।

তারা বলেন, যাতায়াত, ভ্যাকসিনসহ শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত না করে লকডাউনে রফতানিমুখী কারখানা খোলার সিদ্ধান্ত গ্রহন করে মালিকের মুনাফার লালসার বলি বানালো হলো শ্রমিকদের। করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঊর্ধ্বগতি সত্ত্বেও কঠোর লকডাউনে রফতানিমুখী শিল্প কারখানা খুলে দেওয়ার সরকারি সিদ্ধান্তকে চরম অবিবেচনাপ্রসূত ও অমানবিক

নেতৃত্রয় অবিলম্বে শ্রমিকদের ভ্যাকসিন দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, সরকার একটি বিশেষ মহলকে সন্তুষ্ট করতে দেশের কোটি কোটি মানুষকে সংক্রমণের ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছে। শিল্প কারখানা খুলে দেওয়ার ঘোষণার পর সারাদেশ থেকে অর্ধ কোটিরও বেশি শ্রমিক, কর্মজীবী শত শত মাইল পথ পায়ে হেঁটে, ছোট যানবাহনে গাদাগাদি করে দশ থেকে পনের গুণ ভাড়া দিয়ে ঢাকায় আসছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ