বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০২:৪৬ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন বিক্রি হচ্ছে মেডিকেল গ্রেডে: জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ শুক্রবার, ৩০ জুলাই, ২০২১

ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন বিক্রি হচ্ছে মেডিকেল গ্রেডে: জরিমানা

জুয়েল নাগ, মিরসরাই প্রতিনিধি : মীরসরাইয়ের বারইয়ারহাটে চিনকি আস্তানা মাজারের সামনে একটি প্রতিষ্ঠানে শিল্প কারখানায় লোহা কাটাসহ ভারি কাজে ব্যবহৃত ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেনকে মেডিকেল অক্সিজেন হিসেবে বাজারজাত করা হচ্ছে বলে চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেলে সেখানে অভিযান চালায়।

আজ ২৯ তারিখ বিকাল ৫ ঘটিকায় মিরসরাই নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিনহাজুর রহমানের নেতৃত্বে বারৈয়ারহাট এর মেসার্স সামীয়া ট্রেডিং নামে একটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালান। এসময় অক্সিজেন সিলিন্ডারে মূল্য তালিকা না থাকাই ভোক্তা অধিকার আইনে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে। এবং একটি সিলিন্ডার গুনাগুন ও মান পরিক্ষার জন্য সীতাকুণ্ডে পাঠানো হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুবল চাকমা ও বারৈয়ারহাট পৌর মেয়র রেজাউল করিম খোকন ।

চিকিৎসকদের মতে, মেডিকেল অক্সিজেনের পরিবর্তে মুমূর্ষু রোগীদের ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন দেয়া হলে তা মারাত্মক বিপর্যয় ডেকে আনবে।

বাজারে সাধারণত দুই ধরনের অক্সিজেন পাওয়া যায়। একটি ইন্ডাস্ট্রিয়াল গ্রেড অক্সিজেন (ঘনত্ব ৫০-৭০ শতাংশ)। অন্যটি মেডিকেল গ্রেড অক্সিজেন (ঘনত্ব ৯৯.৯৯ শতাংশ)। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মুমূর্ষু রোগীদের জন্য ব্যবহৃত মেডিকেল গ্রেড অক্সিজেন প্রায় শতভাগ বিশুদ্ধ হতে হয়। যা শিল্প কারখানায় পণ্য উৎপাদনে ব্যবহৃত ইন্ডাস্ট্রিয়াল গ্রেড অক্সিজেনের ক্ষেত্রে নিশ্চিত করা হয় না। ফলে মেডিকেল গ্রেড অক্সিজেনের তুলনায় ইন্ডাস্ট্রিয়াল গ্রেড অক্সিজেনের দাম কম। তা ছাড়া এটা মানবদেহের জন্য ক্ষতিকরও। কিন্তু করোনা মহামারির এই সময়ে ইন্ডাস্ট্রিয়াল গ্রেড অক্সিজেনই সিলিন্ডারে ভরে মেডিকেল গ্রেড অক্সিজেন হিসেবে বিক্রি হচ্ছে চড়া দামে।

দেশে মেডিকেল গ্রেড পিউরিটির অক্সিজেন প্রস্তুতকারক বৈধ প্রতিষ্ঠান মাত্র তিনটি। সেগুলো হলো- সরকারি-বেসরকারি যৌথ মালিকানার বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান লিন্ডে বাংলাদেশ, বেসরকারি মালিকানাধীন স্পেকট্রাম অক্সিজেন লিমিটেড ও নারায়ণগঞ্জের ইসলাম অক্সিজেন লিমিটেড।বাজারে নিম্নমানের অক্সিজেন সরবরাহ প্রসঙ্গে এই প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে বলা হচ্ছে, দেশের কোথাও এসব কোম্পানির কোনো ডিলার নেই। অথচ তাদের প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যবহার করে একটি চক্র নিম্নমানের অক্সিজেন বাজারে বিক্রি করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ