বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৩:২০ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

সাবেক মুখ্য সচিব ও বিওআই চেয়ারম্যান এসএ সামাদ আর নেই

বাংলাদেশ প্রতিবেদন
প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১

সাবেক মুখ্য সচিব ও বিওআই চেয়ারম্যান এসএ সামাদ আর নেই

প্রধানমন্ত্রীর সাবেক মুখ্য সচিব এবং তৎকালীন বিনিয়োগ বোর্ডের (বিওআই) সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. এস এ সামাদ আজ বিকেলে বারিধারায় নিজ বাসভবনে মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৭৯।

ড. সামাদের ভাতিজা জামিলুর রব বলেন, বারিধারায় নিজ বাসায় তিনি ঘুমন্ত অবস্থায় মারা গেছেন।’
তিনি বলেন, মস্তিষ্কের জটিলতার জন্য চিকিৎসা নিয়ে সিটি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার একদিন পর আগে চিরকুমার সামাদ মারা গেলেন। রব বলেন, ড. সামাদ সুস্থ হয়ে উঠছিলেন।
দেশের শীর্ষস্থানীয় এ অর্থনীতিবিদের প্রথম নামাজে জানাজা আগামীকাল সকাল ১০ টায় ১ নং রোডের বারিধারা জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে।
তিনি জানান, জোহরের নামাজের পর দ্বিতীয় নানাজে জানাজার পরে সামাদকে ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় তার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।
পেশাদার সরকারি কর্মকর্তা সামাদ এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগে শিক্ষকতা করেন।
ড. সামাদ ১৯৪২ সালে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় ও বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতি বিষয়ে অধ্যয়ন করেন এবং ১৯৭৯ সালে বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন।

বিশিষ্ট আইনজীবী সৈয়দ আবদুল গনির পুত্র সামাদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বোস্টন স্টেট কলেজ, বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ প্রশাসনিক স্টাফ কলেজ, জনপ্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলে শিক্ষাবিদ, পেশাদার অর্থনীতিবিদ ও আন্তর্জাতিক বেসামরিক কর্মকর্তা হিসাবে অর্থনীতি পড়ান।

আশির দশকের মাঝামাঝি সময়ে তিনি পাবলিক সেক্টর সংস্কার সংক্রান্ত কয়েকটি জাতীয় কমিটির নেতৃত্ব দেন এবং ১৯৮০ এর দশকের গোড়ার দিকে রাষ্ট্রপতির অর্থনৈতিক উপদেষ্টা হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৯৯৬ সালে ভারতের সাথে ঐতিহাসিক গঙ্গার পানিরণ্টন চুক্তি এবং ১৯৯৭ সালে পার্বত্যা চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি(পিসিজেএসএস)-এর সাথে শান্তি চুক্তিতে পৌঁছার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।
নব্বইযয়ের দশকের শেষের দিকে তাকে পূর্ণ মন্ত্রীর পর্যাদায় তৎকালীন বিওআই’র নির্বাহী চেয়ারম্যান হিসাবে নিয়োগ দেয়া হয়।

পাকিস্তান সিভিল সার্ভিস (সিএসপি)’র সদস্য হিসবে রাঙ্গামাটির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি) হিসাবে দায়িত্ব পালনকালে সামাদ পাকিস্তানের সাথে সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করে মুজিবনগর সরকারে যোগ দেন।
তিনি ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত (অবসরের আগ পর্যন্ত) মুজিবনগর কর্মচারী (মুক্তিযোদ্ধা) কল্যাণ সমিতির সভাপতি ছিলেন।

সামাদ ১৯৯০ থেকে ১৯৯৬ পর্যন্ত কুয়ালালামপুরে জাতিসংঘের এশিয়া ও প্যাসিফিক ডেভেলপমেন্ট সেন্টারে (এপিডিসি) অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনা ও তথ্য তথ্যযুক্তি বিষয়ক প্রোগ্রাম ডিরেক্টরের দায়িত্ব পালন করেন।
তিনি ১৯৯২ এবং ১৯৯৭ এর মধ্যবর্তী সময়ে এ অঞ্চলের বৃহত্তম সামাজিক বিজ্ঞান উন্নয়ন অধ্যয়ন নেটওয়ার্ক, এডিআইপিএ’র নির্বাহী সচিব ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ