বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০২:০৩ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

কেমন চলছে সর্বাত্মক লকডাউন?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১

কেমন চলছে সর্বাত্মক লকডাউন?

করোনা সংক্রমণ কমাতে দেশব্যাপী দ্বিতীয় দফায় আরোপিত কঠোর বিধিনিষেধের চতুর্থ দিন আজ। আজ রাজধানীর বিভিন্ন সড়কের মোড়ে মোড়ে কড়াকড়ি অবস্থানে রয়েছে পুলিশ-র‌্যাব। তবে এদিন অন্যান্য দিনের তুলনায় সাধারণ মানুষের চলাচল কিছুটা বেড়েছে। রিকশা ও ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা কিছুটা বেড়েছে। তবে সড়কে পুলিশের চেকপোস্টে তল্লাশী ছিল আগের মতোই। পুলিশ বিভিন্ন সড়কে বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেট দিয়ে নিয়মিত টহল দিচ্ছে। সড়কে কেউ বের হলেই পুলিশি জেরার মুখে পড়তে হচ্ছে। বিনা প্রয়োজনে কেউ বের হলে কোন ছাড় দেয়া হচ্ছে না। সরকারি বিধিনিষেধ ভঙ্গ করায় গ্রেফতার ও জরিমানা করা হচ্ছে।

সকালে বনানী, মহাখালী, তেজগাঁও, বিজয় সরণি, ফার্মগেট, বাংলামোটর, শাহবাগ, পল্টন, মতিঝিল, মগবাজার, খিলগাঁও, বাসাবো, যাত্রাবাড়ি ও সায়েদাবাদ এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

যাত্রাবাড়ি এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বিধিনিষেধ চলাকালেও সড়কে বের হয়ে অনেকে জরুরি প্রয়োজন ও নানা ধরনের অজুহাত দেখাচ্ছেন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের। অনেক সেবামূলক প্রতিষ্ঠান খোলা থাকায় সেসব প্রতিষ্ঠানের কর্মীদেরও অফিসে যেতে দেখা গেছে।

বিধিনিষেধ কার্যকর করতে পুলিশ ও র‌্যাবের পাশাপাশি বিজিবি এবং সেনাবাহিনীর সদস্যরা মাঠে রয়েছে।
গত ১৩ জুলাই বিধিনিষেধ আরোপ করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। ওই আদেশে ১৪ জুলাই মধ্যরাত থেকে ২৩ জুলাই সকাল ৬টা পর্যন্ত বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছিল ঈদের কারণে।

২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে নতুন করে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল ওই ঘোষণায়। আগামী ৫ আগস্ট দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত এই বিধিনিষেধ বহাল থাকবে।
বিধিনিষেধের তৃতীয় দিনে ৫৮৭ জনকে গ্রেফতার করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

রোববার সন্ধ্যায় ডিএমপির মিডিয়া ও পাবলিক রিলেসন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) ইফতেখারুল ইসলাম বাসসকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ চলাকালে জরুরী প্রয়োজন ছাড়া অহেতুক ঘোরাফেরা করায় রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে পুলিশ ।
এছাড়া ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ২৩৩ জনকে ১ লাখ ৯৫০ টাকা জরিমানা করা হয়।
অপরদিকে ডিএমপি ট্রাফিক বিভাগ ৫২১টি গাড়ির ১২লাখ ৭২হাজার টাকা জরিমানা করেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ