রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১১:৫৬ অপরাহ্ন
জরুরী ঘোষণাঃ
দেশের কয়েকটি জেলা, উপজেলা, থানা ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগঃ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হটলাইন। বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। যোগাযোগঃ +৮৮ ০১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ হোয়াটসআপ। আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলার পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যে কোনো ব্যতিক্রম খবর পাঠিয়ে দিতে পারেন। ছবি ও ভিডিও থাকলে আরো ভাল। পাঠিয়ে দিন আমাদের এই ঠিকানায়: protibedonbd@gmail.com • আপনি কি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতায় পড়শুনা করছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে ‘ইন্টার্নশিপ’ এর সুযোগ। আজই যোগাযোগ করুন। করোনা থেকে বাঁচতে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। • বাংলাদেশ প্রতিবেদন-এর পাঠক, দর্শক, বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভাকাঙ্খীদের জানাই ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা ‘ঈদ মোবরক’।

ডিএসই-সিএসইতে বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ারের লেনদেন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১১৪ /২০২১
প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১
????????????????????????????????????

ডিএসই-সিএসইতে বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ারের লেনদেন শুরু

বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার লিমিটেডের বরাদ্দপ্রাপ্ত শেয়ার বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাবে প্রেরণ শেষে উভয় স্টক এক্সেচেঞ্জে লেনদেন শুরু। ১৫ জুলাই দেশের উভয় শেয়ারাবাজারে লেনদেন শুরু হয়েছে।

এই উপলক্ষ্যে ডিএসই এবং সিএসই এর কার্যালয়ে চুক্তি স্বাক্ষর করা হয় এবং তারপরেই ঐতিহ্য অনুযায়ী ঘন্টা বাজিয়ে ট্রেডিং কর্মসুচীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। এই চুক্তি অনুষ্ঠানে উভয় শেয়ার বাজারের ব্যবস্থাপনা পরিচালকদ্বয় স্মীয় প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন। বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার লিমিটেড এর পক্ষে কোম্পানির চেয়ারম্যান গোলাম রাব্বানী চৌধুরী, ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঞ্জুর কাদির শাফি, চীফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, হেড অব ইন্টারনাল অডিট বাবু মনোজ দাশ গুপ্ত এবং কোম্পানি সেক্রেটারী মোহাম্মদ রানাসহ অন্যান্য উর্ধত্বন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ারের ডিএসই ও সিএসইতে ট্রেডিং কোড হচ্ছে ‘BPPL’। আর ডিএসইতে কোম্পানিটির কোড ১৫৩২৪ এবং সিএসইতে ২০০২৪। এর আগে গত ৫ জুলাই কোম্পানিটির আইপিও’র শেয়ার বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বরাদ্দ করা হয়। বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে আসা কোম্পানিটি গত ১৩ জুন থেকে ১৭ জুন পর্যন্ত আইপিও আবেদন সম্পন্ন করে।

এর আগে কোম্পানিটির কাট-অফ প্রাইস নির্ধারণে ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিডিং (নিলাম) অনুষ্ঠিত হয়। বিডিংয়ে কোম্পানিটির কাট-অফ প্রাইস নির্ধারিত হয় ৩২ টাকা।

গত ৫ জানুয়ারি শেয়ারবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৭৫৫তম সভায় কোম্পানিটিকে বিডিংয়ের অনুমোদন দেয়।

বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ২২৫ কোটি টাকা উত্তোলন করে। যা তার সাবসিডিয়ারি কর্ণফুলী পাওয়ার ও বারাকা শিকলবাহা পাওয়ারে বিনিয়োগ, দীর্ঘমেয়াদি ঋণের আংশিক পরিশোধ এবং আইপিওজনিত ব্যয়ে ব্যবহার করা হবে।

কোম্পানিটির ২০১৯-২০ অর্থবছরে সমন্বিতভাবে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৪.৩৭ টাকা। ২০২০ সালের ৩০ জুন কোম্পানিটির সমন্বিতভাবে শেয়ারপ্রতি নিট সম্পত্তি মূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৩ টাকায়।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে ছিল লংকাবাংলা ইনভেস্টমেন্টস।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Categories