রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ০২:৪৭ অপরাহ্ন

বাউফলে পল্লী বিদ্যুতের দালাল ফারুক মেম্বারের খুটির জোর কোথায়?

পিয়াল হাসান, বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি / ২৮ /২০২১
প্রকাশকালঃ রবিবার, ২ মে, ২০২১

বাউফলে পল্লী বিদ্যুতের দালাল ফারুক মেম্বারের খুটির জোর কোথায়?

পটুয়াখালীর বাউফলের চন্দ্রদ্বীপ মূল উপজেলা থেকে বিচ্ছিন্ন একটি ইউনিয়ন। চারপাশে নদী বেষ্টিত ইউনিয়নের স্থানীয় জনগণের পেশা কৃষি, মৎস্য আহরণ ও মৎস্য ব্যবসা।

নিম্ম ও মধ্যবিত্তদের আবাসস্থলই বলা চলে ইউনিয়নটিতে। দীর্ঘ অনেক বছর সৌর বিদ্যুতের আলোয় চলছিলো ইউনিয়নটি।

সম্প্রতি স্থানীয় সাংসদ ও সাবেক চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজ এমপির দূরদর্শিতায় পল্লী বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হতে যাচ্ছে চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়ন। কিন্তু তবুও স্থানীয় মানুষের মুখে হতাশার ছাপ ও বুক চাপা কষ্টের ব্যাথা রয়েই গেছে।

দ্বীপটিতে পল্লী বিদ্যুতের নতুন সংযোগ দেয়ার নামে বেড়েছে দালাল চক্র।স্থানীয় ৯ নং ওয়ার্ডের দালাল ফারুক মেম্বারের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী।দালাল ফারুক মেম্বার বিদ্যুতের নতুন সংযোগ দেয়ার নামে স্থানীয়দের কাছে ৪৫০০ টাকা দাবি করছেন, এছাড়াও মিটার বাবদ আলাদা টাকাও চার্জ দিতে হবে নাকি তাকে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, ফারুক মেম্বার বলছেন পল্লী বিদ্যুতের নির্ধারিত ইলেকট্রিশিয়ানদের দিয়েই নাকি ঘর ওয়ারিং করাতে হবে আর সেই জন্য তাদের দিতে হবে ৪৫০০টাকা এবং মিটার বাবদ দিতে হবে আলাদা চার্জ।

এ ব্যাপারে ফারুক চৌকিদারের (মেম্বার) সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি পুরো অভিযোগটি অস্বীকার করেন। তিনি বলেন এ ব্যাপারে আমি কিছুই জানিনা, আমার ঘরের কাজই তো আমি অন্য লোক দিয়ে করিয়েছি, এসব কাজ খুব ঝামেলার কাজ আমি কেন মানুষের কাছে টাকা চাইবো।আমি এর সাথে জড়িত না ভাই।

খোঁজ নিয়ে জানা গেলো মূলত ফারুক মেম্বার আগে থেকেই এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে স্থানীয় সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রেখেছে। তিনি তার পছন্দের ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে কাজ করিয়ে হাতিয়ে নিতে চান লাখ লাখ টাকা।

এ বিষয়ে পল্লী বিদ্যুতের বাউফল জোনাল অফিসের ডিজিএম মো: ছোহরাব হাছান বলেন আমরা পল্লী বিদ্যুৎ অফিস থেকে কাউকেই এসব নির্দেশনা দেইনি।আমরা স্থানীয় মানুষদের বলেছি দ্রুত ঘর ওয়ারিং করে অফিসে ৪৫০-৬৫০টাকা জমা দিতে।আর এর মধ্যেই তারা মিটার পেয়ে যাবেন সেক্ষেত্রে তাদের আলাদা কোনো টাকা দিতে হবেনা। এই টাকাটা সর্বনিম্ন এক কিলোওয়াট থেকে দুই কিলোওয়াটের জন্য প্রযোজ্য। ঘর ওয়ারিং এর ক্ষেত্রে তিনি বলেন, দক্ষ ইলেকট্রিশিয়ান যে কাউকে দিয়েই এটা করা যাবে।

তবে কিছু পার্স আছে যেগুলো খুব ভালো মানের ব্যবহার করতে হবে নইলে দূর্ঘটনার সম্ভাবনা থাকে।

হাছান আরও বলেন সারাদেশেই পল্লী বিদ্যুতের দালাল চক্র সক্রিয়। স্থানীয় গ্রাহকেরা তাদের কাছে না যেয়ে সরাসরি আমাদের কাছে আসলে আমরা সঠিক পরামর্শ দিতে পারি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৭৭৯,৭৯৬
সুস্থ
৭২১,৪৩৫
মৃত্যু
১২,১২৪
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট

Categories