বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৫৯ অপরাহ্ন

ভূমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্থদের বঞ্চিত করে উন্নয়ন কাজ করছে জিসিসি

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১০৪ /২০২১
প্রকাশকালঃ শনিবার, ৩ এপ্রিল, ২০২১

ভূমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্থদের বঞ্চিত করে উন্নয়ন কাজ করছে জিসিসি

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের (জিসিসি) উন্নয়ন কর্মসূচি অব্যাহত রাখতে ভূমি অধিগ্রহণের ক্ষতিপূরণ ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে বঞ্চিত করে কর্পোরেশনের মনোনীত নির্মাণ সংস্থা বিভিন্ন এলাকায় উন্নয়ন কাজ শুরু করেছে।

জিসিসি এলাকার মোট ১৪৮ জন ভুক্তভোগী স্থানীয় সরকার বিভাগকে (এলজিডি) একটি অভিযোগ জমা দিয়েছেন, যাতে তারা তাদের ক্ষতিপূরণ আদায় করতে হস্তক্ষেপ চেয়ে জিসিসি এবং নির্মাণকারী সংস্থার কাছ থেকে এসেছেন।
তবে অভিযোগ উপেক্ষা করে জিসিসির মনোনীত ঠিকাদার মনির কনস্ট্রাকশন এলাকায় উন্নয়নমূলক কাজ শুরু করেছে। শ্রমিকরা প্রতি মধ্যরাতে বিভিন্ন এলাকার রাস্তা খনন করে চলেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

মধ্যরাতের নির্মাণ কাজের কারণে এলাকার হাজার হাজার মানুষ এবং সেখানে অবস্থানরত বিভিন্ন কারখানার মালিক ও শ্রমিকরা তাদের স্বাভাবিক চলাচলে প্রচুর দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ভাঙাচোরা রাস্তাগুলোর কারণে বেশিরভাগ কারখানা তাদের পণ্য এবং কাঁচামাল বহন করতে বাধার মুখে পড়েছে।

অভিযোগকারীরা দাবি করেছেন যে, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণ, সংশ্লিষ্ট জিসিসি কর্মকর্তারা এবং নির্মাণ সংস্থা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে বঞ্চিত করে বিপুল পরিমাণ ক্ষতিপূরণ আত্মসাৎ করার চেষ্টা করছে।

অভিযোগ অনুসারে, সরকার রাস্তাঘাট নির্মাণ ও মেরামতসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য সিটি কর্পোরেশনের জন্য ৩ হাজার ৮০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। বরাদ্দের মধ্যে জমি মালিকদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য ১১৬১ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছিল। কর্মসূচির আওতায় প্রায় ৩৮৯.৭৮ একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছিল।

এতে বলা হয়েছে, এই কর্মসূচির আওতায় জিসিসির ৩নং ওয়ার্ডের কাদের মার্কেটের মাধ্যমে বাইপাইল থেকে কাশেম কটন মিলস পর্যন্ত প্রায় ১৪৮টি ভূমি মালিক জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রমের শিকার হয়েছেন। ডিপিপি অনুসারে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ক্ষতিপূরণের জন্য বরাদ্দ পাওয়া তহবিল পাবেন।

এলজিডির সিনিয়র সচিব হেলাল উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সরকার ইতিমধ্যে জমির মালিকদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য তহবিল বরাদ্দ করেছে।

নিয়ম অনুসারে ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণ দিয়ে উন্নয়ন কাজ শুরু হয়। “জিসিসি এখনও ক্ষতিপূরণ কেন দেয়নি আমি বুঝতে পারছি না।”

জিসিসির মেয়র জাহাঙ্গীর আলম ফোনে এই সংবাদদাতাকে বলেছেন, জিসিসি এলাকায় বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্প চলছে। জিসিসি কর্তৃপক্ষ ক্ষতিগ্রস্থ জমির মালিকদের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে তহবিল বিতরণ করেছে। “তবে, ক্ষতিপূরণটি কারা পায়নি তা বলা আমার পক্ষে শক্ত হবে।”

স্থানীয় ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্বাস উদ্দিন খোকনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তিনি ক্ষতিপূরণ চেয়ে আবেদন জমা দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যে জমির মালিকদের কাছে অনুরোধ করেছেন। “যারা আবেদন জমা দেবেন তারা ক্ষতিপূরণ পাবেন। যারা প্রক্রিয়া অনুসরণ করে আবেদন জমা দেবেন না তারা ক্ষতিপূরণ পাবেন না।” সূূূত্রঃ ডেইলি অবজারভার


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৭৩৬,০৭৪
সুস্থ
৬৪২,৪৪৯
মৃত্যু
১০,৭৮১
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
৪,০১৪
সুস্থ
৭,২৬৬
মৃত্যু
৯৮
স্পন্সর: একতা হোস্ট

Categories