বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন

অমর একুশে বই মেলায় লেখক মাসুদ পথিকের দুইটি বই

সুদীপ দেবনাথ রিমন / ১১২ /২০২১
প্রকাশকালঃ শুক্রবার, ২৬ মার্চ, ২০২১

মাসুদ পথিকের সাক্ষাৎকারঃ

প্রশ্নঃমুজিব শতবর্ষ ও স্বাধীনতার
সুবর্ণ রজত জয়ন্তী মাসে বই মেলায় আপনার কয়টি বই বের হচ্ছে ও কি কি?
উওরঃ যেই অমর একুশে বই মেলাটি হওয়ার কথা ছিল ফেব্রুয়ারি মাসে এইবার সেই বইমেলাটি হচ্ছে মার্চ মাসে অমর একুশে বইমেলা উপলক্ষে আমার দুইটি নতুন বই প্রকাশিত হচ্ছে একটি হল “পাগলের বুদবুদ ” এটি বের হচ্ছে পানকৌড়ী প্রকাশনী ও অন্যটি হল “দান বাজারে এসব নন্দন বেপারী এন্ড নিউ কলোনি কোলাহল ” এটি বের হচ্ছে নব সাহিত্য প্রকাশনী।
প্রশ্নঃ আপনি যে দুটি বই অমর একুশে বইমেলার জন্য লিখেছেন এই বইগুলো তাৎপর্য কী ও ব্যাখ্যা করেন?
উওরঃ অ্যাকচুয়ালি আমি গ্রাম বাংলা নিয়ে কাজ করি সবাই জানে অলরেডি অনেকেই মনে হয় আমার পরিচয় সম্পর্কে জানে মানুষের যে টানাপোড়া গ্রামীণ কৃষকের যে জীবন তাদের যাপিত জীবনে টানাপোড়েন তাদের আরো আরো সাতশ্বতকালে যে কৃষি সমাজে বিভিন্ন নির্ভরশীল রুপরেখা, কঠোর পরিশ্রম, তাদের ইতিহাস-ঐতিহ্য আগমনী সর্বোপরি আমাদের বাংলার সয়েল সার্ভেজে জে অন্তর্গত যে ভূত সেই ভুত আমার লেখায় আমার কবিতায় উঠে আসে। এই পর্যন্ত আমার বই বের হয়েছে ২১ টি।
প্রশ্নঃ মহামারী করোনায় আক্রমণ আবারো বেড়েছে সেক্ষেএে অমর একুশে বইমেলায় স্বাস্থ্যবিধির নিরাপত্তার নিয়ম-কানুন কেমন হওয়া উচিত?
উওরঃ স্বাস্থ্যবিধি যেটা হয়েছে সারা পৃথিবীতে একটা করোনা পেনডামিক বিষয় হয়ে উঠেছে এটা সবাইকে এক ধরনের একটা জীবন হানি ও আতঙ্কের মধ্যে ঢুকিয়ে দিয়েছেন পাশাপাশি আমাদের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা নস্ট করছে। এটা প্রভাব আরও কয়েক বছর থাকবে আর যেহেতু করোনার প্যানডেমিক টা বাংলাদেশ অনেকটাই নিয়ন্ত্রিত কেননা টিকা চলে আসছে। আমাদের দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সাফাল্য যে আমাদেরকে অলরেডি মৌলিক যোগ্য টিকা আমরা পেয়ে গিয়েছি। অন্যান্য দেশে এখনো পায়নি। এর ভিতর দিয়ে এক ধরনের নিরাপত্তা আছে যে আমরা যদি স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিয়মিত বই মেলায় যাই তাহলে আমাদের কোন কিছুই হবে না।
প্রশ্নঃ আপনি ২১ টি বই এ পর্যন্ত বের করেছেন তাদের মধ্যে কোন বইটি সবচেয়ে আপনার অন্যতম লেখা মনে হয়েছে?
উওরঃ আমার সবগুলো ঘড়ি আমি ভালোভাবে বের করার চেষ্টা করেছি তবে একটি বই আছে সেটি হচ্ছে “চাষার পুর” এটা একটি ১৬ ফর্মার কবিতা বই এর আগে কখনো বের হয় নাই এটা খুবই মোটা একটা বই এই বইটা খুব আলোচিত বই কেননা ইন্ডিয়াতে বেশ কিছু জায়গায় রিভিউ হয়েছে কলকাতায় রিভিউ হয়েছে এবং এইবার যে বের হচ্ছে পাগলের বুদবুদ এটা একটা এক্সপেরিমেন্টাল বই চমংকার ভাবে ধানকে রূপকভাবে নিয়ে এসেছি।
প্রশ্নঃ তরুণ লেখকরা কি ভাল বই লিখতে পারবেন কিনা মনে করেন?
উওরঃ হ্যাঁ তরুণরা অনেক ভালো লিখছি তরুণদের মধ্যে অনেক সম্ভাবনা আছে বিশেষ করে তাদের মধ্যে অনেকেরই দেখলাম ভালো চিন্তা ভাবনা করছে এবং একজন ভালো লেখক এর বৈশিষ্ট্য হচ্ছে সিমটেক্স গঠন করা বা বাক্য গঠন করার প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়েই তার উৎকর্ষ সাধিত হয় যে সে ভাল লিখেছে।
প্রশ্নঃ আপনার প্রিয় লেখক কে এবং এখন পর্যন্ত কোন কোন লেখকএর বই পড়ে উৎসাহ পেয়েছেন?

উওরঃ এখন বেঁচে থাকা কবি লেখক এর মধ্যে একজন আছেন তিনি হল নির্মলেন্দু গুণ তার কবিতা আমার বরাবরই ভালো লাগে। তারপর আছে মোঃ সামাদ আরও তারেক সুজাত এরা ভাল লেখে। তারপরে আছেন তারপর আরও অনেকে আছেন। একচুয়ালি আমার পার্ট একটু ভিন্ন ইউনিভার্সিটি চলাকালীন সময়ে আমি পাঠচক্র পড়েছিলাম। ১১ বছর পাঠচক্রের সাথে ছিলাম। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন চত্বরে আমরা সাপ্তাহে তিনদিন বই পড়তাম তারপর বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রে বসতাম তখন আমরা পৃথিবীর ইতিহাস ও রাজনৈতিক বিষয়ক খুব গুরুত্ব সহকারে পড়েছিলাম, পৃথিবীর দর্শনের ইতিহাস, তারপর ভাষার ইতিহাস, তারপর নী-বিজ্ঞান এগুলো আমরা ভালোভাবে পড়েছিলাম তখন সাহিত্য পড়েছিলাম এখন পড়ছি ইকু ফেলোসোফী ।
প্রশ্নঃ এইবার বইমেলা কেমন হবে পাঠকদের উচরেপড়া জমজমাট হবে কি না?
উওরঃ আমি কালকে গিয়ে গিয়েছিলাম বই মেলায় অনেক স্টল হয়েছে এবং স্টলগুলো খুব সুন্দর হয়েছে। আমি আশাবাদী এই বইমেলায় বিশাল জমজমাট হবে ও পাঠকটা নিয়মিত বই কিনবেন।
প্রশ্নঃ এইবার ব্যতিক্রম হল যে স্বাধীনতা রজতজয়ন্তী মাসে বা বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকীতে বই মেলা শুরু হল কেন?
উওরঃ একই কথা আমাদের একুশে ফেব্রুয়ারি বা স্বাধীনতার মাস জাতির চেতনা সাথে যুক্ত এই তিনটা মাসতো জাতীয় চেতনার সাথে যুক্ত। তিনটি মাসই জাতীয় ভাবে আমাদেরকে অনুপ্রাণিত করেন। আমাদের জাতীয় সত্তার ও দেশপ্রেমের উদ্বুদ্ধ করে কিন্তু মার্চ কোন বিষয় না তবে একটা বিষয় সেটি হত বৃষ্টির সময় আসছে তাতে কোন ক্ষতির হওয়ার সম্মুখীন আছে কি না!
প্রশ্নঃ অমর একুশে বইমেলায় নিরাপত্তা থাকবে কি রকম মনে করেন?
উওরঃ অমর একুশে বইমেলাতে সব সময় দর্শকদের স্বার্থে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়ে থাকে। এবার আর বেশী আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিরাপত্তা বেষ্টনী দিয়েছেন।
প্রশ্নঃ অমর একুশে বইমেলা এইবার কাকে উৎসর্গ করেছেন?
জাতির জনক শেখ মুজিবর রহমার এর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বইমেলাকে বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করা হয়েছে খুবই চচমৎকার একটি বিষয় আমাদের জাতি সত্তার বিকাশের আমাদের বাঙ্গালি বাংলাদেশের স্থপতি এই চেতনাটা আমার মধ্যে কাজ করছে পুরো বছর জুড়ে বঙ্গবন্ধু মুজিব শতজন্মবার্ষিকী উদযাপন এটা চমৎকার লাগছে। বইমেলা আগের চেয়ে এইবার বেশী বেড়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৭৩৬,০৭৪
সুস্থ
৬৪২,৪৪৯
মৃত্যু
১০,৭৮১
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
৪,০১৪
সুস্থ
৭,২৬৬
মৃত্যু
৯৮
স্পন্সর: একতা হোস্ট

Categories