শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৫:৫৯ পূর্বাহ্ন

সড়কে ঝুঁকি বাড়ছেঃ থার্ড পার্টি বীমা বাতিল, ফার্স্ট পার্টিও ঐচ্ছিক

সাইফুল শুভ / ১৩৪ /২০২০
প্রকাশকালঃ শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
ছবি ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

সড়কে ঝুঁকি বাড়ছেঃ থার্ড পার্টি বীমা বাতিল, ফার্স্ট পার্টিও ঐচ্ছিক বা বাধ্যতামূলক নয়

প্রতিদিনই সড়কে দুর্ঘটনার হার বাড়ছে। প্রচলিত থার্ড পার্টি বা তৃতীয় পক্ষের ঝুঁকি বীমা বাতিল করা হলেও ফার্স্ট পার্টি বা প্রথম পক্ষের ঝুঁকি বীমা বাধ্যতামূলক নয়। ফলে সড়কে পরিবহন শ্রমিক ও সাধারণ মানুষের ঝুঁকি বেড়েই চলেছে।

সাধারণত থার্ড পার্টি বীমা চালু থাকলে যাহবাহনের জন্য কোন ক্ষতিপূরণ পাওয়া যায় না। তবে যানবাহন দ্বারা কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হলে ক্ষতিপূরণ পেত। এর ফলে পথচারী, পরিবহন শ্রমিকরা সুরক্ষিত ছিল।

ফার্স্ট পার্টি ইন্সুইরেন্স বাধ্যতামূলক না থাকায় পরিবহন মালিকরা বীমা করছেন না। এতে পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রী উভয়ই ঝুঁকিতে রয়েছেন।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ জেনারেল ইন্সুইরেন্স কোম্পানি লিমিটেড (বিজিআইসি) কোম্পানি সচিব সাইফুদ্দিন আহমেদ বাংলাদেশ প্রতিবেদনকে বলেন, থার্ড পার্টি ইন্সুইরেন্স নিয়ে সচেতনতার অভাব ছিল সাধারণ মানুষের মাঝে। মানুষ মনে করতো থার্ড পার্টি ইন্সুইরেন্স থেকে কোন ক্ষতিপূরণ পাওয়া যায় না। অথচ এটি সম্পুর্ন ভুল ধারণা। কে বলতে পারবে না যে ক্লেইম করে ক্ষতিপূরণ পায়নি। অনেকে জানেই না এটি কার জন্য প্রযোজ্য। যানবাহনের জন্য নয়, যানবাহন দিয়ে যদি তৃতীয় কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হয়, তার জন্য ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করা হয়।

গত বছরের ডিসেম্বরে বাতিল হয়েছে মোটরযানের ক্ষেত্রে তৃতীয় পক্ষের ঝুঁকি বীমা অর্থাৎ থার্ড পার্টি ইন্স্যুরেন্স সুবিধা। দেশের বীমা খাতে শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা ও পলিসি গ্রাহকদের স্বার্থ নিশ্চিতের লক্ষ্যে এই সুবিধা বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)।

২০ ডিসেম্বর এই বিষয়ে একটি নির্দেশনা জারি করা হয়। আইডিআরএর চেয়ারম্যান ড. মোশাররফ হোসেন স্বাক্ষরিত এই নির্দেশনাটি ওইদিন থেকেই কার্যকর বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

আদেশের কপি দেওয়া হয়েছে সাধারণ বীমা কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও দেশের সকল বীমা কোম্পানির মুখ্য নির্বাহীর কাছে। একই সাথে অনুলিপি দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, বিএসইসির চেয়ারম্যান, এফআরসির চেয়ারম্যান, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এবং বিআরটিএ চেয়ারম্যানকে।

তথ্য মতে, ২০২০ সালে দেশে চার হাজার ৭৩৫টি সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচ হাজার ৪৩১ জন নিহত এবং সাত হাজার ৩৭৯ জন আহত হয়েছেন।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে সড়ক দুর্ঘটনার সংখ্যা শূন্য দশমিক ৮৯ শতাংশ বেড়েছে। প্রাণহানি বেড়েছে চার দশমিক ২২ শতাংশ এবং আহতের হার বেড়েছে তিন দশমিক ৮৮ শতাংশ। আগের বছরে তুলনায় ২০২০ সালে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা বেড়েছে ১৫ দশমিক ৮৯ শতাংশ এবং প্রাণহানি বেড়েছে ৫৪ দশমিক ৮১ শতাংশ। করোনার সংক্রমণের কারণে ২০২০ সালে দুই মাস সড়কে পরিবহন চলাচল বন্ধ থাকার পরেও দুর্ঘটনা ২০১৯ সালের তুলনায় বেঢ়েছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

এ বিষয়ে বিআরটিএর সাবেক চেয়ারম্যান ও ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলনের অন্যতম নেতা আয়ুবুর বরহমান খান বলেন, যাত্রী ও শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হলে থার্ড পার্টি বা ফার্স্ট পার্টি যেকোন একটি বীমা বাধ্যতামূলক করতে হবে।

Exchange Rate


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৫৪৫,৪২৪
সুস্থ
৪৯৫,৪৯৮
মৃত্যু
৮,৩৯৫
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
৪৭০
সুস্থ
৭৪৩
মৃত্যু
১১
স্পন্সর: একতা হোস্ট

Categories

নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:১২
  • ১২:১৫
  • ১৬:২১
  • ১৮:০৩
  • ১৯:১৭
  • ৬:২৪