মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৯:৫১ পূর্বাহ্ন

কিশোরগঞ্জ কারাগারে দুর্ধর্ষ বন্দি সাইদুরের হাতে বন্দি নিহত

মুহাম্মদ আমিনুল ইসলাম (কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি) / ২০ /২০২০
প্রকাশকালঃ বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারের অভ্যন্তরে সেলের ভেতর ঘুমন্ত অবস্থায় কাঠ দিয়ে মাথায় আঘাত করে এক বন্দিকে হত্যা ও আরেক বন্দিকে গুরুতর আহত করার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ভোররাত ৩টা ৫৫মিনিটে কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারের বিশেষ সেলের ১১নং কক্ষে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে।

সাইদুর মিয়া নামে এক বন্দি সেলের টয়লেটের দরজার কাঠ খুলে সেটি দিয়ে উপর্যুপরি পিটিয়ে আব্দুল হাই (২৭) ও জাহাঙ্গীর (২৮) নামে দুই বন্দিকে গুরুতর আহত করে। তাদের মধ্যে আব্দুল হাইকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে ভোর সাড়ে ৪টায় কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এছাড়া আহত অপর বন্দি জাহাঙ্গীর কারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ ঘটনায় তাৎক্ষণিক সেলের দায়িত্বরত কারারক্ষী খোকন মিয়াকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

এদিকে ঘটনা তদন্তে আইজি প্রিজন ও জেলা প্রশাসন তিন সদস্য বিশিষ্ট পৃথক দু’টি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদকে প্রধান করে তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. মিজানুর রহমান ও ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

জেলের ভেতরে হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়া আব্দুল হাই কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার রশিদাবাদ ইউনিয়নের শিমুলিয়া গ্রামের ইসরাইল মিয়ার ছেলে। নেশা করে পিতা-মাতাকে মারপিট ও তাদের খুন করতে উদ্যত হওয়ায় পিতা ইসরাইল মিয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ৫ জানুয়ারি আব্দুল হাইকে গ্রেপ্তার করে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ।

পরদিন ৬ জানুয়ারি তাকে ফৌজদারী কার্যবিধি ১৫১ ধারায় আদালতে সোপর্দ করার পর কারাগারে পাঠানো হয়েছিল। এরপর থেকে সে হাজতী হিসেবে কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে আটক ছিল।

এছাড়া আহত জাহাঙ্গীর জেলার নিকলী উপজেলার নয়াহাটি গ্রামের শাহজাহানের ছেলে। সে একটি মাদক মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে হাজতী হিসেবে কারাগারে আটক রয়েছে।

অন্যদিকে ঘাতক সাইদুর মিয়া জেলার তাড়াইল উপজেলার কালনা মাইজপাড়ার ইসমাইল মিয়ার ছেলে। ২০১৭ সালের ৫ জুলাই ভৈরব থানায় মুক্তিপণের দাবিতে শিশু অপহরণের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় পরদিন ৬ জুলাই গ্রেপ্তার হওয়ার পর ৭ জুলাই থেকে কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে হাজতী হিসেবে আটক রয়েছে।

দুর্ধর্ষ বন্দি সাইদুরের জেলখানায় এই কিলিং মিশনে হতবাক সবাই।

কারা সূত্র ও সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারের বিশেষ সেলের ১১নং কক্ষে ৬ জন বন্দি ছিল। মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ভোররাত ৩টা ৫৫মিনিটের দিকে হাজতী সাইদুর মিয়া সেলের টয়লেটের দরজায় সজোরে লাথি মারে।

এতে দরজার কাঠ আলগা হয়ে এলে সেটি খুলে সেলের ভেতর ঘুমিয়ে থাকা দুই হাজতী আব্দুল হাই ও জাহাঙ্গীরের ওপর চড়াও হয়। এ সময় কাঠ দিয়ে দুজনেরই মাথায় উপর্যুপরি আঘাত করে তাদের গুরুতর আহত করে সাইদুর।

এ পরিস্থিতিতে কারারক্ষীরা এগিয়ে গিয়ে আহত অবস্থায় আব্দুল হাই ও জাহাঙ্গীরকে উদ্ধার করে কারা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় আব্দুল হাইকে ভোর সাড়ে ৪টায় কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পরে লাশ হাসপাতাল মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতাল থেকে দেয়া মৃত্যুর প্রমাণপত্রে ভোর সাড়ে ৪টায় মৃত অবস্থায় রোগীকে নিয়ে আসা হয়েছিল বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অতনু বড়ুয়া মৃতদেহের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করেন। সুরতহাল করার সময় মৃতদেহের মাথায় আঘাতের চিহ্ণ পাওয়া যায়।

পরে লাশের ময়নাতদন্ত করা হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অতনু বড়ুয়ার উপস্থিতিতে হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. এএসএম মাহবুবুর রহমান, ইমার্জেন্সি মেডিকেল অফিসার ডা. সজিব ঘোষ ও মেডিকেল অফিসার ডা. তাইয়েব মাহমুদ লাশের ময়নাতদন্ত করেন।

কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. বজলুর রশীদ জানান, সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে বিশেষ সেলের ১১নং কক্ষে ৬ জন বন্দি ঘুমিয়েছিল। মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ভোররাতে হাজতী সাইদুর মিয়া ঘুম থেকে জেগে ওঠে লাথি দিয়ে টয়লেটের দরজার কাঠ খুলে ফেলে।

ভোররাত ৩টা ৫৫মিনিটে সে ঘুমন্ত দুই হাজতী আব্দুল হাই ও জাহাঙ্গীরের মাথায় কাঠ দিয়ে সজোরে আঘাত করে। এতে দুজনেই গুরুতর আহত হয়।

সেলের দায়িত্বরত কারারক্ষী খোকন বিষয়টি জানালে জেল সুপার ও জেলারসহ অন্যরা তাৎক্ষণিক সেলটিতে ছুটে যান।

আহত দুজনকে উদ্ধার করে কারা হাসপাতালে নেওয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে ভোর সাড়ে ৪টায় নিয়ে যাওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুল হাইকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে কারারক্ষী খোকনকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলেও সিনিয়র জেল সুপার বজলুর রশীদ জানিয়েছেন।

এদিকে জেলের ভেতরে হত্যাকাণ্ডের খবরে কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম, পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) কারাগারে ছুটে যান।

ঘটনা তদন্তে জেলা প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্যরাও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। বিকালে তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ জানান, তাদের কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত সম্পন্ন করে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ বলেন, ‘রাখিব নিরাপদ, দেখাব আলোর পথ’ এই স্লোগান যেন কারাগারে নিশ্চিত করা যায় এ জন্যে জেলের অভ্যন্তরে বন্দিদের নিরাপত্তাসহ সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়ে কিছু প্রস্তাবনা দেয়ার কথাও আমরা ভাবছি।

অন্যদিকে দুপুরের পর ডিআইজি প্রিজন তৌহিদুল ইসলাম কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগার পরিদর্শনে কিশোরগঞ্জ আসেন।

Exchange Rate


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৫৪৬,৮০১
সুস্থ
৪৯৭,৭৯৭
মৃত্যু
৮,৪১৬
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট

Categories

নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:০৯
  • ১২:১৪
  • ১৬:২২
  • ১৮:০৫
  • ১৯:১৮
  • ৬:২০