বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৬:২৮ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

‘আবৃত্তিশিল্পী-উপস্থাপক পরিচয় দিতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি’

বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশকালঃ শনিবার, ৩০ জানুয়ারি, ২০২১

‘আবৃত্তিশিল্পী-উপস্থাপক পরিচয় দিতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি’

আফরোজা কণা। একাধারে উপস্থাপক, আবৃত্তিশিল্পী, লেখক ও শিক্ষক। আবার গানও করেন তিনি। আজ ৩০ জানুয়ারি আফরোজা কণার জন্মদিন। জন্মদিনে তিনি গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তুলে ধরেন তার বর্তমান ব্যস্ততা ও ভবিষ্যত পরিকল্পনা।

– প্রশ্ন: আপনিতো বহুমুখী সৃষ্টিশীল কাজের সাথে যুক্ত আছেন। এর মধ্যে কোন্ পরিচয়টি দিতে আপনি বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন?
আফরোজা কণা : আবৃত্তিশিল্পী ও উপস্থাপক।

– প্রশ্ন: আপনি পৃথিবীর বহু দেশ ভ্রমণ করেছেন। এসব দেশের কোন্ জিনিসটি আপনার অনেক ভালো লেগেছে যা বাংলাদেশের সমাজে দেখতে চান?
আফরোজা কণা : দেশপ্রেম ও সময়ানুবর্তিতা।

– প্রশ্ন: আপনার লেখালেখির বিষয়বস্তু কি? ভবিষ্যতে আর কি কি বিষয় নিয়ে লিখতে চান?
আফরোজা কণা : প্রকৃতি ও মানবজীবন। স্বদেশ ও সংস্কৃতি।

– প্রশ্ন: আপনার সৃষ্টিশীল কাজের স্বীকৃতি ও পুরস্কারপ্রাপ্তি সম্পর্কে কিছু বলুন।
আফরোজা কণা : পুরস্কার তো অনেক পেয়েছি। তবে উল্লেখযোগ্য হলো: নির্ণয় গোল্ড মেডেল ‘পাথরের চোখে জল’ ছোটগল্পের জন্য।
সেরা উপস্থাপক-২০০৯ (মাপসাস থেকে)। বাংলাদেশ বেতারের সেরা উপস্থাপক ২০১৯। কবি জসীম উদ্দীন সাহিত্য সম্মাননা ২০২১।

– প্রশ্ন: আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতির বিকাশে আপনার বিবেচনায় আরো কি কি করা যেতে পারে? নতুন প্রজন্মের কিশোর-কিশোরি ও তরুণ-তরুণীদের আমরা আমাদের ইতিহাস-ঐতিহ্য-সংস্কৃতি চর্চায় আরো বেশি বেশি যুক্ত করতে কি কি পদক্ষেপ নিতে পারি?
আফরোজা কণা : আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতিকে আরো বেশি পরিচর্যা করতে হবে। বিশেষ করে শিশু-কিশোরদের নিজস্ব ঐতিহ্যের গুরুত্ব বোঝাতে বেশি বেশি অনুশীলনের প্রয়োজন। যতোই আমরা বিদেশী সংস্কৃতির দিকে ধাবিত হইনা কেনো অবশ্যই আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতিকে প্রাণে ধারণ করতে হবে এবং হৃদয়ে লালন করতে হবে।

– প্রশ্ন: আপনার সৃষ্টিশীল কাজের ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?
আফরোজা কণা : আমি যেহেতু পেশায় শিক্ষক তাই ভবিষতে শিশুদের নিয়ে কাজ করতে চাই। শিশুরাই আগামী দিনের কর্ণধার। নতুন প্রজন্মকে সঠিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়তে চাই। তবেই দেশটা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় পরিণত হবে বলে আমার বিশ্বাস।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ