বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৬:০৯ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

চরফ্যাশনে ভয়াল ১২ নভেম্বরের ৫০ বর্ষপূর্তি

এম আবু সিদ্দিক,চরফ্যাশন (ভোলা) বিশেষ প্রতিনিধি
প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২০


উপকূলের সমস্যা, সংকট, সম্ভাবনা, উপকূল মানুষের ন্যায্যতা দাবি এবং ১৯৭০ সালে ১০ লাখ নিহতদের স্বরণে ভোলার চরফ্যাশনে ভয়াল সেই বার নভেন্বর ট্রাজেডি দিবস পালিত হয়েছে।গত দু বছর এই দিবসটি রাস্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতির দাবি জানিয়ে ” উপকূল দিবস” হিসেবে পালন করা হয়। রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবিতে উপকূল ফাউন্ডেশন গঠন করা হয়েছে।আজ উপকূলবর্তী হেলা উপজেলার পাশাপাশি ভোলার চরফ্যাশন প্রেসক্লাবের আয়োজনে মানববন্ধন ও ক্লাবভবনে আলোচনাসভা ও দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে অংশ নিয়ে বক্তারা বলেন উপকূলের সংকট,সমস্যা,সম্ভাবনা এবং উপকূলের মানুষের অধিকার ও ন্যায্যতা ও রাস্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবিতে উপকূলজুড়ে প্রতিবছর দাবি অব্যাহত থাকবে। আজ উপকূলবাসীর কাছে সবচেয়ে বেশি স্মরণীয় এই শোকাবহ দিনটি।আজ ১২নভেম্বর। বক্তারা বলেন বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বাংলাদেশের উপকূলের নতুন নতুন দুর্যোগ সৃষ্টি হচ্ছে। এই বিষয় সম্পর্কে মানুষকে আরও সচেতন করে তুলতে দিবসের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। উপকূলের চরণ সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম মন্টুর সার্বিক পৃস্টপোষকতায় উপকূল ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সরকারের কাছে দাবি সমূহ- প্রথমতঃউপকূলের সুরক্ষা নিশ্চিতকরণ; দ্ব দ্বিতীয়তঃউপকূলকে প্রাকৃতিক বিপদ এবং জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবমুক্ত রাখা; তৃতীয়তঃউপকূলের দিকে নীতিনির্ধারণী মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ; চতুর্থতঃউপকূলের মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠা; পঞ্চমতঃউপকূলের সম্ভাবনা বিকাশের পথ সুগম করা; ষষ্ঠতঃউপকূলের দিকে দেশী -বিদেশী প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার নজর বাড়ানো।
সপ্তমতঃউপকূলের ইস্যুগুলো জাতির সামনে তুলে আনা।অষ্টমতঃ১৯৭০ নবমতঃ১৯৭০সালের ১২ নভেম্বরের সাইক্লোনে নিহতদের স্মরণে রাস্ট্রীয়ভাবে উপকূল দিবস হিসেবে ঘোষনা করা।

মানব বন্ধনে অংশগ্রহনকারী উপকূল ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবীরা জানান জাতিসংঘের পর্যবেক্ষণ থেকে উপকূলের জন্য ১৯৭০ সালের ১২ নভেম্বর দিনটি আরও গুরুত্বপূর্ণ।জাতিসংঘের বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা(ডব্লিউএমও) বিশ্বের পাঁচ ধরনের ভয়াবহ প্রানঘাতি আবহাওয়া ঘটনার শীর্ষ তালিকায় বাংলাদেশের উপকূল অঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ৭০ এর ভয়াল ১২ নভেম্বরের ঘূর্ণিঝড়টিকে পৃথিবীর ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর প্রাণঘাতি ঘূর্নিঝড় হিসেবে উল্লেখ করেছে।

অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করেন, চরফ্যাশন প্রেসক্লাবের সভাপতি হাসেম মহাজন, সাধারন সম্পাদক মনির আহম্মেদ শুভ্র,প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি
এম আবু সিদ্দিক,সহসভাপতি ইয়ছিন আরাফাত।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ