মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:২৫ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণাঃ
• করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, টিকা নিন। • গুজব নয়, সঠিক সংবাদ জানুন। • দেশের কিছু জেলা, উপজেলা, গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং বিশ্বের কয়েকটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। • আপনি কি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'ফিল্ম ও মিডিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে পড়ছেন? বাংলাদেশ প্রতিবেদন আপনাকে দিচ্ছে 'ইন্টার্নশিপ'-এর সুযোগ। • আপনিও হতে পারেন সাংবাদিক! চলতি পথে নানা অসঙ্গতি, দুর্নীতি, কারো সফলতা বা যেকোনো ভিন্নধর্মী খবর (ছবি অথবা ভিডিও) পাঠাতে পারেন। • হটলাইনঃ +৮৮০ ১৯ ০৯ ৮৬ ২৬ ১৬ (হোয়াটসঅ্যাপ), • ই-মেইলঃ protibedonbd@gmail.com • গুগল, ফেসবুক ও ইউটিউবে আমাদের পেতে Bangladesh Protibedon লিখে সার্চ দিন।

এন্টিবায়োটিক কি মানব দেহে অকেজো হয়ে যাচ্ছে!

তানহা শোয়াইব, রংপুর মেডিকেল কলেজ
প্রকাশকালঃ রবিবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০
এন্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স anti-drug antibiotics tablets

এন্টিবায়োটিক কি মানব দেহে অকেজো হয়ে যাচ্ছে! আমরা কি ‘এন্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স’ হয়ে যাচ্ছি!

মেডিকেল জগতে অসংখ্য সাড়া জাগানো ঘটনার মধ্যে সীমিত সংখ্যক ঘটনাই মানবজীবনে স্থায়ী প্রভাব ফেলতে পেরেছে। এন্টিবায়োটিক আবিষ্কার এমনই একটি সাড়া জাগানো আবিষ্কার, যা একইসাথে ছিলো অবশ্যপ্রয়োজনীয়, অকস্মাৎ আবিষ্কৃত এবং স্থায়ীভাবে সাড়াজাগানিয়া।

বিংশ শতাব্দীর সেরা মেডিকেল আবিষ্কারটিকে সর্বকালের অন্যতম সেরা বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার বললেও বাড়িয়ে বলা হয় না।

এন্টিবায়োটিকের আবিস্কারক ডাঃ ফ্লেমিং বলেছিলেন, যেই এন্টিবায়োটিকের কারণে আজ কোটি কোটি মানুষ বেঁচে যাচ্ছে। অনেক বছর পর এগুলো আর কাজ করবে না। তুচ্ছ কারণে কোটি কোটি মানুষ মারা যাবে আবার।

এন্টিবায়োটিক খাওয়ার কিছু নিয়ম আছে। একটা নির্দিষ্ট ডোজে, একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত এন্টিবায়োটিক খেতে হয়। না খেলে যেটা হতে পারে সেটাকে বলা হয় ‘এন্টিবায়োটিক রেজিসটেন্স’। ডোজ শেষ না করলে কিছু ব্যাকটেরিয়া শরীরে বেঁচে যায়। এরা তখন সেই এন্টিবায়োটিক এর বিরুদ্ধে টিকে থাকার সক্ষমতা অর্জন করে।

ব্যাপারটা এরকম যে ব্যাকটেরিয়াগুলো একটি নির্দিষ্ট এন্টিবায়োটিক এর সাথে যুদ্ধরত অবস্থায় থাকে তাদের কোষ প্রাচীর, জেনেটিক ম্যাটেরিয়াল ইত্যাদিতে বিশেষ পরিবর্তন আসে। এই ব্যাকটেরিয়াগুলো যদি যুদ্ধে টিকে যায় তবে এ পরিবর্তনের তথ্য স্থায়ীভাবে সেই ব্যাকটেরিয়াগুলোর ডিএনএতে সংরক্ষিত থাকে যা এদের পরবর্তী বংশধরেরা উত্তরাধিকার সূত্রে পেয়ে যায় এবং ঐ এন্টিবায়োটিক এর বিরুদ্ধে টিকে থাকার সহজাত ক্ষমতা লাভ করে। ফলাফল এন্টিবায়োটিক প্রতিরোধী শক্তিশালী নতুন ব্যাকটেরিয়া প্রজন্মের উদ্ভব যাদের উপর একসময় প্রচলিত এন্টিবায়োটিকটি আর কাজ করে না।

হচ্ছেও তাই। আমাদের দেশে অনেক এন্টিবায়োটিক এখন আর কাজ করে না, বাকিগুলোর ক্ষমতাও কমে আসছে। উন্নত দেশগুলোতে এন্টিবায়োটিক ব্যবহারে অনেক বেশি সচেতনতা তৈরি হয়েছে।

কিন্তু আমাদের দেশে মানুষ সামান্য জ্বর-সর্দীতেই মুড়িমুড়কির মতো এন্টিবায়োটিক খাওয়া শুরু করে। হয়ত একসময় এমন অবস্থা হবে যে আমাদের বড় বড় হসপিটাল থাকবে, সেখানে এফসিপিএস, এমডি, পিএইচডি করা ডাক্তাররা থাকবেন কিন্তু কারোরই কিছু করার থাকবেনা। সামান্য কাটা-ছেঁড়া থেকে ঘা, সাধারণ সর্দী-কাশী-জ্বর, হঠাৎ পেট ব্যাথা হয়েই মানুষ ইহলোক ত্যাগ করবে।

ডাঃ ফ্লেমিং এর আবিষ্কার ‘এন্টিবায়োটিক’ মানবসমাজকে করেছিলো আশ্চর্যান্বিত এবং আশান্বিত। কিন্তু কোনএকদিন হয়ত ‘কমপ্লিট এন্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স’ মানুষকে আশ্চর্যান্বিত করলেও করবে চরমভাবে আশাহত।

সেই দিন না আসুক। সমাজে ‘এন্টিবায়োটিক সচেতনতা’ বৃদ্ধি পাক। জীবাণুর সাথে মানুষের লড়াইয়ে জীবাণুরা চিরকাল আন্ডারডগই থাকুক। এটাই প্রত্যাশা।


আপনার মতামত লিখুন :

৩ responses to “এন্টিবায়োটিক কি মানব দেহে অকেজো হয়ে যাচ্ছে!”

  1. Dr. Engr. Md. Lutfor Rahman, PEng; Ex-DG, RRI says:

    Is it possible to remove the antibiotic resistant bacteria?

    Pl. see the today international zoom meeting via ID No. 2233556677
    Password abc123

  2. Dr.Engr. Md. Lutfor Rahman,PEng, Ex-DG, RRI says:

    Is it possible to remove resistant bacteria from the human body?
    Please watch the zoom meeting at 3:30 pm in the today’s (Friday) in the international recognition.
    ID No. 2233556677
    Password abc123

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ